বঙ্গবন্ধুকে খুনি আখ্যায়িত করলেন কলেজ অধ্যক্ষ!

(Last Updated On: ফেব্রুয়ারি ২১, ২০১৭)

মাদারীপুর রাজৈর উপজেলার টেকেরহাট বন্দরে অবস্থিত শহীদ সরদার সাজাহান গার্লস স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ মোখলেছুর রহমান অমর একুশে ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের আলোচনা সভায় বক্তব্য দিতে গিয়ে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে খুনি বলে আখ্যায়িত করেছেন। এ ঘটনায় সভাস্থলে তুমুল তর্কবিতর্ক সৃষ্টি হয়। এ বক্তব্যের প্রতিবাদ করায় এক প্রভাষককে ধমক দিয়ে বসিয়ে দেওয়া হয়।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক শহীদ সরদার সাজাহান গার্লস স্কুল এন্ড কলেজের একাধিক শিক্ষক জানান, ২১ ফেব্রুয়ারি সকালে প্রভাতফেরি ও শহীদ মিনারে পূষ্পস্তবক অর্পণ শেষে হলরুমে আলোচনা সভা শুরু হয়। সকলের বক্তব্য শেষে সভাপতির বক্তব্য দিতে গিয়ে অধ্যক্ষ মোখলেছুর রহমান বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান তৎকালীন স্পিকার সাহেদ আলী পাটোয়ারীকে সংসদের মধ্যে চেয়ার দিয়ে পিটিয়ে হত্যা করেছিলেন। এ সময় কলেজের প্রভাষক নাজমা রশীদ এর প্রতিবাদ করলে তিনি তাকে ধমক দিয়ে বলেন, ‘আমি ইতিহাস জানি। আপনারা ইতিহাস জানেন না, ইতিহাস জেনে কথা বলবেন।’

অধ্যক্ষের এ কথা প্রথমে গোপন থাকলেও অনুষ্ঠান শেষে বিষয়টি জানাজানি হয়ে যায়।

এ ব্যাপারে অধ্যক্ষ মোখলেছুর রহমান বলেন, আমি বঙ্গবন্ধুকে খুনি বলিনি। বলেছি যুক্তফ্রন্ট নির্বাচনের সময় সাহেদ আলী পাটোয়ারী ছিলেন স্পিকার। তিনি আমাদের দেশের বিপক্ষে কথা বলায় বঙ্গবন্ধু সহ্য করতে না পেরে তাকে চেয়ার দিয়ে পিটিয়ে মেরে ফেলেছিলেন। এটা সত্য কথা, ইতিহাসে আছে।

রাজৈর মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা সঞ্জীব কুমার বালা জানান, এ ধরনের কথা বলা তার ঠিক হয়নি। যদি বলে থাকে তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এ ব্যাপারে জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক কাজল কৃষ্ণ দে বলেন, শহীদ সরদার সাজাহান গার্লস স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ মোখলেছুর রহমান ইতিহাস বিকৃতি করে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে কটুক্তি করেছেন যা আপত্তিকর এবং অত্যন্ত নিন্দনীয়। আমি এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। পাশাপাশি কলেজ কর্তৃপক্ষের কাছে তার শাস্তির দাবী জানাচ্ছি।

http://www.dainikamadershomoy.com/

Print Friendly, PDF & Email

Comments

comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.