যেভাবে মনোনয়ন পেলেন সীমা

(Last Updated On: ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০১৭)

ঘড়ির কাটা রাত সাড়ে ৮টা নাগাদ কুমিল্লা জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারন সম্পাদক আফজাল খাঁনের ছেলে এফবিসিসিআই পরিচালক মাসুদ পারভেজ খান ইমরানকে ফোন করে এনামুল হক শামীম (বাংলাদেশ আওয়ামী  লীগের সাংগঠনিক।সম্পাদক) জিজ্ঞাসা করেন গনভবনে আসতে কতক্ষন লাগবে । তখন ইমরান খাঁন পিতা আফজাল খাঁনসহ বড় বোন আঞ্জুম সুলতানা সীমা সহ সংসদ ভবনের সামনে চটপটি খাচ্ছিলেন । মিনিট দশের মধ্যে শংকার নিয়ে গনভবনে প্রবেশ করেন কি জানি কি হয় ? গিয়ে দেখেন আরেক প্রার্থী নুর উর রহমান তানিম সেখানে আগেই আছেন ভিতরে প্রবেশ করতেই এনামুল হক শামীম অভিনন্দন জানিয়ে কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে দলীয় মনোনয়নের বিষয় টি আঞ্জুম সুলতানা সীমাকে নিশ্চিত করে । এ সময় শেখ সেলিম এসে বলেন তোমরা এত দেরী কেন তাড়াতাড়ি ভিতরে যাও । এ সময় সীমা ভাই ইমরান খাঁনকে নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর সাথে দেখা করতে গেলে তিনি বলেন নমিনেশন

দিলাম যাও সবাইকে নিয়ে কাজ করে জয় এনে দাও । এসময় দলের অপর মনোনয়ন প্রত্যাশি নুর উর রহমান তানিম কে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন এবার কাজ করবে তো , বিদ্রোহী হয়ে নির্বাচন করে এতদিন দলের বাহিরে ছিলে এবার কাজ করো । গনভবন সুত্রে জানা যায় প্রধানমন্ত্রী শিল্প মন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ কে বলেন আপনি সংসদ সদস্য বাহার কে ফোন দেন সে যদি এবার সীমার জন্য কাজ না করে তবে আমি আগামী সংসদ নির্বাচনের  নমিনেশন সীমাকে দিবো । উল্লেখ্য গত শনিবার সমকালে প্রকাশিত একটি নিউজ অপর মনোনয়ন প্রত্যাশি আরফনুল হক রিফাতের ভাগ্য পুড়ে বলে জানা যায় , বি এন পি প্রার্থী মনিরুল সাক্কুর উদ্ধিতি দিয়ে পত্রিকা টি জানান রিফাত নির্বাচন করলে সাক্কু নির্বাচন

করবে না । বিষয় টি নিয়ে আওয়ামী লীগ মহলে ব্যাপক প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয় । এমনিতেই কুমিল্লা তে মানুষের মুখে মুখে রটিত স্হানীয় সংসদ সদস্য হাজী বাহার ও মেয়র মনিরুল হক সাক্ক ভাগাভাগি করে সব কাজ বন্টন করেন  । এছাড়া সীমার প্রতি ছোট কাল থেকে ই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মমতা ছিল যখন তিনি ১৯৮৯ সালে ৪ দিনের সফরে কুমিল্লা এসেছিলেন তখন সীমার পিতা আওয়ামী লীগ নেতা আফজাল খাঁনের বাড়িতে থাকতেন । ঐ সময়

অবসর সময় তিনি সীমা কে আদর করে মাথা আছড়িয়ে চুল বেধে দিতে দিতেন । পরে যখনই দেখা হতো কাছে নিয়ে আদর করতেন । গত সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের মেয়র কাউন্সিলারদের শপথ অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী সীমা ডেকে বলেন তুই মেয়র পদে ইলেকশন করলি না কেন । আঞ্জুম সুলতানা সীমা রাজনীতিতে পিতা পদাংক অনুসরন করে প্রবেশ করলেও এখন তিনি পিতাকে ছাপিয়ে গেছেন নিজের যোগ্যতায় । সাধরন চাল চলনের জন্য তিনি কুমিল্লায় জনপ্রিয় ।

Print Friendly, PDF & Email

Comments

comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.