হল্যান্ড দুতাবাসের ফাস্ট সেক্রেটারির উপর ফারুক বাহিনীর হামলা ! 

(Last Updated On: March 5, 2017)

দ্বিগ নারায়ণ পাল -হল্যান্ড দুতাবাস কতৃক আয়োজিত আন্তজাতিক মাতৃভাষা দিবসে বক্তব্য দিতে না দেওয়াতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আত্মস্বীকৃত খুনী মেজর শরফুদ্দীন আহমেদ ডালিমের পারিবারিক বন্ধু হল্যান্ড আওয়ামী লীগের বহিস্কৃত সাবেক সভাপতি মাঈদ ফারুকের নেতৃত্বে কয়েক জন সন্ত্রাসী হল্যান্ডের অবস্হিত বাংলাদেশ দুতাবাসের প্রথম সচিব মোহাম্মদ ইশতিয়াক আহমেদকে মারধর করে লাঞ্চিত করার অভিযোগ পাওয়া গিয়াছে ।

শনিবারের এই অনুষ্ঠানের শুরুতে অস্থায়ী শহীদ মিনারে পুস্প অর্পণ করা হয়। বাংলাদেশ থেকে আগত নরসিংদী-৩ থেকে নির্বাচিত জাতীয় সংসদ সদস্য মো: সিরাজুল ইসলাম এবং বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রদূতগণ ফুল দিয়ে শহীদ মিনারের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। পর্যায়ক্রমে নেদারল্যান্ডস আওয়ামী লীগ সহ সকল সামাজিক সংগঠন ও প্রবাসী বাংলাদেশী এবং বিদেশি অতিথিগণ শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। প্রায় তিন শতাধিক প্রবাসী বাঙালি ও বিদেশিদের উপস্থিতিতে মহান ভাষা আন্দোলনের শহীদদের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা জানিয়ে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়।

একুশের তাৎপর্য তুলে ধরে বক্তব্য রাখেন রাষ্ট্রদূত শেখ মোহাম্মদ বেলাল। তিনি বলেন, বাঙলা ভাষা ‘আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস’ হিসেবে ‘ইউনেস্কোর স্বীকৃতি লাভের জন্য বাংলাদেশের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, জননেত্রী শেখ হাসিনা সহ অন্যান্যদের অবদানের কথা জাতি চিরদিন স্মরণ করবে। গত ২৬ শে ফেব্রুয়ারী  দুতাবাসের উক্ত অনুষ্ঠানে  আরো বক্তব্য রাখেন ভারতের রাষ্ট্রদূত জে এস মুকুল, মালয়েশিয়ার রাষ্ট্রদূত আহমদ নাজরী বিন ইউসুফ, শ্রীলংকার রাষ্ট্রদূত এ এম সাদিক, ইন্দোনেশিয়ার কূটনীতিক রাজদিজানা পূজা, থাই দূতাবাসের চার্জ দা অ্যাফেয়ার্স আসি মামানী, রোয়ান্ডার দূতাবাসের ফার্স্ট সেক্রেটারি হার্বার্ট ন্দাহিরো, ভিয়েতনামি দূতাবাসের কূটনীতিক থ্যাং এবং দ্য হেগ নগরীর ডেপুটি মেয়র রবিন বালদেব সিংহ।

অনুষ্ঠানে উপস্হিত আওয়ামী লীগ থেকে বহিস্কৃত মাঈদ ফারুক বক্তব্য দেওয়া জন্য চিৎকার শুরু করলে উনুষ্ঠান পরিচালনা দ্বায়িত্বে থাকা ইশতিয়াক আহমেদ বলেন আজকের শুধু রাষ্ট্রদুত মহোদয় ও বিভিন্ন দেশের আগত কূটনীতিকেরা বক্তব্য রাখবেন । তিনি বক্তব্যে দিতে না পেরে কয়েক জন সন্ত্রাসী সহ নিজে ইশতিয়াক আহমেদের উপর ঝাপিয়ে পড়ে আক্রমণ করেন । এ ব্যাপারে স্হানীয় আইন অনুযায়ী মামলা দায়ের হয়েছে বলে জানা যায়  । এব্যাপারে প্রবাসীদের মাঝে তীব্র ক্ষোভের সঞ্চার হয় । তারা মনে করেন মাঈদ ফারুক একের পর এক অপকর্ম করে যাবেন তা মেনে নেওয়া যায় না । উল্লেখ্য গত ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবসের সভায় নিজেকে মেজর ডালিমের পারিবারিক বন্ধু দাবী করে তার গুনগান করেন এতে হল্যান্ড সহ ইউরোপের আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের মাঝে তীব্র প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হলে ইউরোপিয়ান আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এম এ গনি তাকে সংগঠনের সকল পদ থেকে অব্যাহতি দেন ।

Print Friendly, PDF & Email

Comments

comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.