সর্বশেষ সংবাদ

ময়মনসিংহে ছাত্রলীগ নেতার বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ

(Last Updated On: May 24, 2017)

ময়মনসিংহের ভালুকা উপজেলার শিল্পাঞ্চল খ্যাত হবিরবাড়ী ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি আলমগীর কবিরসহ তিন জনের বিরুদ্ধে এক কলেজ ছাত্রীকে মাইক্রোবাসে তুলে ধর্ষণের অভিযোগে ময়মনসিংহ কতোয়ালী মডেল থানায় মামলা দায়ের হয়েছে। মামলা নং ৮০/তারিখ ১৫/০৫/২০১৭ইং, ধারা- ৭/৯(১)/৩০। ঘটনাটি জানুয়ারি মাসের হলেও মঙ্গলবার তা প্রকাশ্যে আসে। ওই কলেজ ছাত্রীর পিতা গত ১৫ মে বাদী হয়ে এই মামলা দায়ের করেন ।

মামলার অন্যান্য আসামীরা হচ্ছে আলমগীরের বন্ধু তুষার(২৬) ও চালক মোখলেস (২৫)।

মামলা হওয়ার ৮দিন পার হলেও এখনো কোনো আসামীকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ। যদিও পুলিশ বলছে, অভিযুক্তদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে ।

ধর্ষণের ঘটনায় মামলা দায়েরের পর থেকে বিষয়টিকে ধামাচাপা দিতে এলাকার একটি প্রভাবশালী মহল উঠে পড়ে লেগেছে এবং মামলা প্রত্যাহারের জন্য বাদীর পরিবারকে বিভিন্নভাবে হুমকি ধমকি দিয়ে যাচ্ছে।

মামলা সূত্রে জানা যায়, কলেজে যাওয়া আসার পথে মেয়েটিকে আলমগীর উত্ত্যক্ত করতো। ঘটনার দিন সকাল ৯টার দিকে আলমগীর তার বন্ধু তুষার এবং মাইক্রোবাস চালক ওই ছাত্রীকে জোরপূর্বক মাইক্রোবাসে তুলে নিয়ে যায় । পরে মাইক্রোবাসেই ধর্ষণ করে তাকে । পরে অজ্ঞান অবস্থায় ওই ছাত্রীকে ফেলে তারা মাইক্রোবাস নিয়ে সটকে পড়ে। জ্ঞান ফিরলে ভুক্তভোগী তার বান্ধবীকে ফোন করলে রক্তাক্ত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয় ।

ভুক্তভোগীর পিতা জানান, এতদিন আমি মান সম্মানের ভয়ে চুপ ছিলাম । কিন্তু একটি প্রভাবশালী মহল আমাকে ও আমার পরিবারকে বিভিন্ন হুমকি ধামকি, এমনকি এলাকা ছাড়তে বলায় অবশেষে মামলা দায়ের করতে বাধ্য হয়েছি ।

এ বিষয়ে জানতে অভিযুক্ত হবিরবাড়ী ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি আলমগীর কবিরের মুঠোফোনে মঙ্গলবার দুপুরে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও ফোন রিসিভ করেনি ।

ময়মনসিংহ কোতোয়ালী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ কামরুল ইসলাম জানান, আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা অব্যাহত আছে । ধর্ষিতাকে মেডিক্যাল করানো হয়েছে । ধর্ষণের আলামত পাওয়া গেছে ।

ভালুকা উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি মনিরুজ্জামান মামুন বলেন, আমরা এখনো এই ব্যাপারে প্রমাণসহ কোনো তথ্য পাইনি। পেলে অবশ্যই তাৎক্ষনিক জেলা কমিটির সাথে যোগাযোগ করে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নিব।

ময়মনসিংহ জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মোঃ রকিবুল ইসলাম বলেন, তাকে বার বার সর্তক করার পরও সে কর্ণপাত করে নাই। তার বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে ।

Print Friendly, PDF & Email

Comments

comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.