ভেনিস আ° লীগ-বিএনপির সভাপতি আপন দুই ভাই!

(Last Updated On: August 3, 2017)

পলাশ রহমানঃ  ইতালির ভেনিস আওয়ামীলীগ এবং বিএনপির সভাপতি আপন দুই ভাই। বড় ভাই আওয়ামীলীগের সভাপতি, ছোট ভাই বিএনপির। এ নিয়ে উভয় দলের মধ্যেই অসস্তি দেখা যায়। দলের ভেতরে যারা তাদের পছন্দ করে না তারা মাঝে মধ্যেই এই ইস্যুটা সামনে নিয়ে আসে। বিশেষ করে যারা দলের কমিটিতে কাঙ্খত পদ বাগাতে পারেনি তাদের মধ্যে এই বিষয়ে অস্থিরতা বেশি দেখা যায়। আওয়ামীলীগ সভাপতির ভাই বিএনপি করে এবং বিএনপি সভাপতির ভাই আওয়ামীলীগ করে, এই কমন অভিযোগ তুলে তারা দুই সভাপতিকে চাপের মধ্যে রাখতে চায়।
মজার বেপার হলো বিএনপির তুলনায় আওয়ামীলীগের সভাপতি শাজাহান কবির ইদ্রিস কে এই ইস্যুতে একটু বেশি চাপ মোকাবিলা করতে হয়। তুলনামূলক কিছুটা কম চাপ পোহাতে হয় বিএনপির সভাপতি আবদুল আজিজ সেলিম কে। তবে দু’জনকেই গোনে গোনে এ বিষয়ে বেগ সামলাতে হয়।

আমি দুই সভাপতির সাথেই কথা বলেছি। তাদের মধ্যে এসব বিষয়ে কোনো হীনমন্যতা দেখিনি। তারা বলেন, এটাইতো গণতন্ত্র। একই পরিবারের মধ্যে দুই ভাই দেশের শীর্ষ দুই দল করি, তাতে সমস্যা কোথায়? পরিবারের জায়গায় পরিবার, দলের জায়গায় দল। একটা আরেকটার সাথে গুলিয়ে ফেলার যেমন কোনো সুযোগ নেই, তেমনি আদর্শগত ছাড় দেয়ারও কোনো সুযোগ নেই। যারা অযোগ্য, অকর্মণ্য তারা কিছু দিন পরপর এই বিষয়টি সামনে এনে সুবিধা হাসিল করতে চায়। দলীয় নেতাকর্মীদের বিভ্রান্ত করতে চায়। কিন্তু তাদের উদ্দেশ্য সফল হয় না।

ক’দিন আগে লিখেছিলাম ভেনিস আওয়ামীলীগ এবং বিএনপির হুমকি, পাল্টা হুমকির নেপথ্যে অন্য গল্প আছে। আজ সেটাই তুলে ধরতে চাই। লম্বা গল্পের সারাংশ হলো- মাত্র অল্প কিছু দিন আগে ভেনিস বিএনপির নতুন কমিটি গঠিত হয়েছে। নতুন কমিটির জন্যে কোনো সম্মেলন করা হয়নি। রোম থেকে আবদুল আজিজ সেলিম কে সভাপতি রেখে দুই বছরের জন্য নতুন কমিটি ঘোষনা দেয়া হয়েছে। এ নিয়ে বিএনপির একটি অংশ বেশ পাড়াপাড়ি করেছে। কোনো লাভ হয়নি। তারা এখন আলাদা বিএনপি করার চেষ্টা করছে।
অভিন্ন বিষয়ে আতঙ্ক বিরাজ করছে আওয়ামীলীগে। কারন আওয়ামীলীগেও সম্মেলনের সময় ঘনিয়ে এসেছে। রোম থেকে যেনো সম্মেলন ছাড়াই নতুন কমিটির অনুমোদন দিয়ে দেয়া না হয় সে জন্য সভাপতি ইদ্রিস বিরোধীরা নানা ভাবে দলের ভেতরে ভজঘট সৃষ্টি করতে চায়। সভাপতিকে চাপে রাখতে চায়। রোমের নেতাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে চায়। এসব কারনে তারা শেখ হাসিনা এবং তারেক রহমানের একটা বিকৃত ছবির শেয়ার নিয়ে এত আদিখ্যেতা শুরু করে। শেয়ারকারীকে মারপিট করতে চায়। তারা তাদের দলীয় নেতাকর্মীদের বোঝাতে চায় আওয়ামীলীগ সভাপতির ভাই বিএনপি করে বিধায় বিএনপির লোক-জোন বিকৃত ছবি শেয়ার দিতে সাহস দেখায়।
উল্লেখ্য, ভেনিস আওয়ামীলীগ বিভক্ত অনেক আগে থেকেই।

 

Print Friendly, PDF & Email

Comments

comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.