দুদকের দুর্নীতি মামলা থেকে কুসিক মেয়র সাক্কুর অব্যাহতি

(Last Updated On: নভেম্বর ২২, ২০১৭)

দুদকের দায়ের করা অবৈধ সম্পদ অর্জন ও তথ্য গোপনের মামলার দায় থেকে অব্যাহতি পেয়েছেন কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের মেয়র ও বিএনপি কেন্দ্রিয় কমিটির সদস্য মনিরুল হক সাক্কু।

মঙ্গলবার ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৮ এর বিচারক শামীম আহম্মদ উভয় পক্ষের শুনানি শেষে তাকে মামলার দায় থেকে অব্যাহতি দেন।

মঙ্গলবার মামলাটি অভিযোগ গঠনের বিষয়ে শুনানির জন্য দিন ধার্য ছিল। সাক্কুর আইনজীবী মাসুদ আহম্মদ তালুকদার তার অব্যাহতি চেয়ে শুনানি করেন। অপরদিকে সাক্কুর বিরুদ্ধে দুদকের আইনজীবী কবির হোসেন অভিযোগ গঠন করার জন্য আবেদন করেন।

উভয় পক্ষের শুনানি শেষে আদালত সাক্কুকে অব্যাহতি প্রদান করেন বলে জানান সাক্কুর আইনজীবী মাসুদ আহম্মদ তালুকদার।

তিনি আরো বলেন, ‘মেয়র সাক্কুকে হয়রানি করার জন্য মামলাটি দায়ের করা হয়। মামলায় অভিযোগ গঠন করার মতো কোনো উপাদান না থাকায় আদালত সন্তুষ্ট হয়ে তাকে অব্যাহতি প্রদান করেছেন।

এর আগে গত ১৮ এপ্রিল মামলার অভিযোগপত্র আমলে নিয়ে সাক্কুর বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন ঢাকার সিনিয়র স্পেশাল জজ কামরুল হোসেন মোল্লা। এরপর আত্মসমর্পণ করে জামিন নেন সাক্কু।২০০৮ সালের ৭ জানুয়ারি অবৈধ সম্পদ অর্জন ও তথ্য গোপনের অভিযোগে ঢাকার রমনা থানায় মামলা করেন দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) সহকারী পরিচালক শাহীন আরা মমতাজ। ২০১৬ সালের ৪ ফেব্রুয়ারি একই কর্মকর্তা আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। অভিযোগপত্রে এ আসামির বিরুদ্ধে ৪ কোটি ৫৭ লাখ ৭৩ হাজার ৯৩৩ টাকা জ্ঞাত আয় বহির্ভূত সম্পদ অর্জন এবং ১ কোটি ১২ লাখ ৪০ হাজার ১২০ টাকার সম্পদের তথ্য গোপনের অভিযোগ করা হয়।

উল্লেখ্য, কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের মেয়র ও বিএনপি কেন্দ্রিয় কমিটির সদস্য মনিরুল হক সাক্কু একমাত্র ব্যক্তি মেয়র বিরোধী দলের হয়েও জেল- নির্যাতন থেকে ধারাবাহিক ভাবে দূরে থাকছেন। বিএনপি- জামাত সমর্থিত মেয়র , উপজেলা ও ইউপি চেয়ারম্যানরা জেল- নির্যাতনের পাশাপাশি পদ থেকে অব্যাহতি পেলেও সাক্কুকে এসবের কিছুই স্পর্শ করতে পারেনি । বলা যায় সাক্কু দেশের একমাত্র ভাগ্যবান মেয়র ও বিএনপি নেতা ।

 

Print Friendly

Comments

comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.