কেউ ভাঙ্গা সুটকেস ফেলে দিবেন না: প্রধানমন্ত্রী

(Last Updated On: ডিসেম্বর ১৩, ২০১৭)

খালেদ গোলাম কিবয়িয়া,  ফ্রান্স সফরত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গতকাল রাতে ফ্রান্স আওয়ামী লীগের দেওয়া সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে বলেন প্রবাসীরা আমি যে কোন দেশে আসলে আমাকে দেখতে এত কষ্ট করে ছুটে আসেন , আমারও আপনাদের সাথে  দেখা করতে ভাল লাগে । প্রবাসীরা দেশে যে কোন সংকটে ঝাপিয়ে পড়েন । বঙ্গবন্ধুর সেই ছয় দফা , ৭১ এর স্বাধীনতা সংগ্রাম থেকে শুরু করে প্রতিটি সংগ্রামে প্রথমেই এগিয়ে আসেন । জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কে হত্যার প্রতিবাদে সুইডেনের রাষ্ট্রদূত আবদুর রাজ্জাক চাকুরী থেকে ইস্তফা দেন এবং ১৯৭৯ সালে সুইডেনে এক সভায় শেখ রেহেনা সর্ব প্রথম বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচার দাবী করেন । প্রবাসীদের রেমিটেন্সে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে । প্রধানমন্ত্রী অভিযোগ করে বলেন জিয়াউর রহমান ঘোষিত রাষ্ট্রপতি ! বি এন পি দাবী করে তিনি বহুদলীয় গনতন্ত্রের প্রবক্তা । তিনি যুদ্ধ অপরাধীদের রাজনীতিতে পুনর্বাসন করেন ।জিয়া পরিবারের দুর্নীতি নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর বলেন আগে বলত জিয়াউর রহমান ভাঙ্গা সুটকেস রেখে মারা গেছেন আজ তার পরিবারের এত সম্পদ , মনে হয় এটা জাদুর বাক্স । তিনি হাসির ছলে বলনে আপনারা কেউ ভাঙ্গা সুটকেস ফেলে দেবেন না ।  দেশ আজ এগিয়ে যাচ্ছে সবদিকে সমানতালে । বি এন পি ২০০১ সাল থেকে  ২০০৭ সাল পর্যন্ত আমার ও রেহেনার  ছেলে মেয়েদের দুর্নীতি খুজে পান নি । তত্বাবধায়ক সরকার আমার কোন ফাঁসাতে অনেক চেষ্টা করেছে । রোহিঙ্গা প্রশ্নে তিনি বলেন স্বাধীনতা যুদ্ধের পর এই প্রথম সারা বিশ্বের মানুষ আমাদের পাশে দাড়িয়ে । শেখ রেহেনা আমাকে সাহস দিয়ে বলল তুমি ১৬ কোটি লোক কে খাওয়াতে পারলে এদের কে ও খাওয়াতে পারবে । রাত ৮ টায় অনুষ্ঠান শুরুর সময় থাকলেও প্রধানমন্ত্রী ৯ টা ১০ মিনিটে হলেরুমে প্রবেশ করেন । প্রধানমন্ত্রী প্রবেশের সাথে কর্মীরা আনন্দে মাতোয়ারা হয়ে শেখ হাসিনা শেখ হাসিনা স্লোগানে ১০ মিনিটেরও বেশী সময় তাদের প্রিয় নেত্রীকে ভালবাসার সিক্ত করেন ।কমিটি   নিয়ে দ্বন্দ্ব থাকায় মঞ্চে ফ্রান্স আওয়ামী লীগের কোন নেতা উঠানো হয়নি । প্রধানমন্ত্রীর পাশে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এইচ মাহমুদ আলী ছিলেন । রাষ্ট্রদূত ইমতিয়াজ হোসেন উপস্হাপনায় ফ্রান্স আওয়ামী লীগের দু গ্রুপের এম এ কাশেম  , মুজিবুর রহমান , মহসিন উদ্দিন খাঁন লিটন ও দিলওয়ার হোসেন কয়েছ প্রধানমন্ত্রী কে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান ।

Print Friendly

Comments

comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.