ফিনল্যান্ডে মুক্তিযোদ্ধার কফিনে জাতীয় পতাকা দিতে জামাতের বাধা !

(Last Updated On: মার্চ ১৮, ২০১৮)

মইনুল ইসলামঃ বাংলাদেশের জাতীয় পতাকাকে জামায়াত যে কতটা ঘৃণা করে তার প্রমান আজ ফিনল্যান্ডে পেলাম মুক্তিযুদ্ধা জহির ভাইর নামাজে জানাজায়। আমি যখন পকেট থেকে  জাতীয় পতাকা বের করে  কফিনের উপর রাখার কথা বললাম তখন এই দেশে জামায়াতের (যা ইসলামী ফোরামের ছদ্মনামে পরিচালিত)  প্রতিষ্ঠাতা ও মূল পৃষ্ঠপোষক কুদ্দুস সাব বাধা দিয়ে বললেন– পতাকা দেওয়া যাবেনা কারন ধর্মে নাই। পাল্টা প্রশ্ন করলাম– ধর্মের কোথায় আছে দেওয়া যাবেনা? দেশে আজ পর্যন্ত কাউকে প্রতিবাদ করতে দেখলাম না। উত্তর ছিল– দেশে  তো কত কিছুই হয়। হ্যা দেশে অনেক কিছুই হয়– রাজাকারের বিচার হয় আর আপনারা তাদের মুক্তির জন্য এইখানে লিফলেট বিতরণ করেন, গোলাম আজমের  গায়েবা জানাজা পরান।  দেশে জাতীয় পতাকা অবমাননা করে কেউ রেহাই পায়না এইখানে পেয়ে গেলেন।  আসলে এরা কখনই স্বাধীনতাকে মেনে নিতে পারেনি, পারবেওনা। হেলসিংকির সেই সব চুতিয়াদের বলছি— যারা এই ধর্ম কারবারিদের হুজুর হুজুর করস  তারা আমার সাথে সম্পর্ক রাখবিনা। মনে রাখবি জাতীয় পতাকা, মুক্তিযুদ্ধ ও দেশের স্বার্থে আমি কারও সাথে আপোস করিনা।

ধন্যবাদ তপন বংগবাসি,কুতুব ভাই,বাপপি ভাইকে জোরালো ভূমিকা রাখার জন্য।

মইনুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক , ফিনল্যান্ড আওয়ামী লীগ ।

ফেইস বুক থেকে ।

 

Print Friendly

Comments

comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.