প্যারিসে রেহেনা কাসেম স্মরণে শোক সভা

(Last Updated On: মার্চ ৬, ২০১৮)

সেলিম উদ্দিন,প্যারিস থেকে, ফ্রান্স আওয়ামী লীগের প্রতিষ্টাতা সাধারণ সম্পাদক ও বর্তমান সিনিয়র সহ-সভাপতি এম এ কাসেমের প্রয়াত স্ত্রী আ্যডভোকেট জান্নাত রেহেনা কাসেমের স্মরণে প্যারিসে শোক সভা ও কুলখানি অনুষ্ঠিত হয়েছে। প্যারিসের লো মেহরাব নামে একটি হলে ৪ মার্চ রোববার স্হানীয় সময় সন্ধ্যায় ফ্রান্স আওয়ামী লীগের উদ্যোগে এই শোক সভা ও কুলখানি অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সভাপতি বেনজির আহমেদ সেলিম। সভা সঞ্চালনা করেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক মহসিন উদ্দিন খাঁন লিটন। সভায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের মাতার মৃত্যুতে শোক প্রস্তাব গ্রহণ করা হয়। সিলেট বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. জাফর ইকবালের উপর দুস্কৃতিকারীর হামলার নিন্দা প্রস্তাব ও প্রতিবাদ জানানো হয়। প্রয়াত আ্যডভোকেট জান্নাত রেহেনা কাসেমের মৃত্যুতে শোক প্রস্তাব গৃহীত হয়।

শোক সভায় ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বক্তব্য দেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কৃষি ও সমবায় বিষয়ক সম্পাদক ফরিদুন্নাহার লাইলী। সভায় আরো বক্তব্য দেন, সংগঠনের সিনিয়র সহ-সভাপতি মরহুমার স্বামী এম এ কাসেম। সহ-সভাপতি ও সাবেক সাধারণ সম্পাদক আবুল কাসেম, সৈয়দ ফয়সল ইকবাল, শাহেদ আলী, জাকির হোসেন ভূইয়্যা।শাহজান সারু, অবনী চন্দ্র গোপাল। ইউরোপিয়ান আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক মুজিবুর রহমান মুজিব, মুক্তিযুদ্ধা সংহতি পরিষদের সভাপতি জামিলুর ইসলাম মিয়া। ফ্রান্স আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা নুরুল হক ভূইয়্যা,মশিউর কামাল। ফ্রান্স আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক মোস্তাফা হাসান, ফয়সল উদ্দিন। ফ্রান্স আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খালেদ গোলাম কিবরিয়া, সেলিম উদ্দিন। দপ্তর সম্পাদক আসাদুজ্জামান সুমন,প্রচার সম্পাদক আমিন খাঁন হাজারী, শিল্প বিষয়ক সম্পাদক কাজি আনোয়ার, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক ছালেহ আহমদ, কোষাধ্যক্ষ সিরাজ উদ্দিন, মানব সম্পদ বিষয়ক সম্পাদক কাওসার মোড়ল, সহ-প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মনসুর আহমেদ। সদস্য মাসুম আহমেদ। সাইফুল ইসলাম রনি,মিজানুর রহমান জামাল, সোহাগ সরোয়ার,হাফিজুর রহমান রাহাত প্রমুহ।

স্হানীয় সময় রবিবার দুপুরে এম এ কাসেমের প্যারিসের বাসভবনে খতমে কোরান ও মোনাজাতের মাধ্যমে প্রয়াত জান্নাত রেহেনা কাসেমের আত্মার মাগফিরাত কামনা করা হয়। শোক সভায় দোয়া মাহফিল ও মোনাজাত শেষে উপস্হিত সকলকে তবারুক বিতরন করা হয়। উল্লেখ্য, এম এ কাসেম ৮০ দশকের চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক সংগ্রামী ছাত্রনেতা। ফ্রান্স আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক ও বর্তমান কমিটির সিনিয়র সহ-সভাপতি। নোয়াখালী জেলার বেগমগঞ্জ থানার হাজিপুর গ্রামের বাসিন্দা ফ্রান্স প্রবাসী এম এ কাসেম ও তার স্ত্রী ফ্রান্স প্রবাসী আ্যডভোকেট জান্নাত রেহেনা মনি জানুয়ারীর ৩ তারিখ দেশে বেড়াতে গিয়েছিলেন। ২২ জানুয়ারি সেনাকুঞ্জে একটি বিবাহ অনুষ্ঠানে তার স্ত্রী হৃদরোগে আক্রান্ত হন। পরবর্তীতে হাসপাতালে নিয়ে গেলে দায়িত্বরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করেন। ২৪ জানুয়ারি তার ফ্রান্স প্রবাসী ছেলে মেয়েরা দেশে গেলে, ২৫ জানুয়ারি বাদ জোহর জানাজার নামাজ শেষে তাকে বনানী কবরস্থানে দাফন করা হয়। মৃত্যুকালে তিনি স্বামী, এক মেয়ে, এক ছেলেসহ বহু গুনগ্রাহী রেখে গেছেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ১৯৯২ সালে এম এ কাসেম ও প্রয়াত জান্নাত রেহেনা মনির বিবাহ অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেছিলেন। কাশেম ও তার স্ত্রীকে প্রধানমন্ত্রী অত্যন্ত স্নেহ করতেন। তার স্ত্রীর মৃত্যুর পর গত ৪ ফেব্রুয়ারী জাতীয় সংসদ ভবনে সংসদ নেতার কার্যালয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন এম এ কাসেম ও তার সন্তান দ্বয়, মেয়ে লাবিনা কাশেম ও ছেলে সাদমান কাসেম। মানবতার জননী, মমতাময়ী নেত্রী মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পরম আদরে ডেকে নিয়ে তাদের কুশলাদি জানতে চান। তার ছেলে মেয়েদের লেখা পড়ার খোঁজ খবর নেন ও তাদেরকে সাহস দেন।

Print Friendly

Comments

comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.