পটুয়াখালীতে স্বামীকে আটকে রেখে গৃহবধূকে ধর্ষণ

(Last Updated On: মার্চ ২১, ২০১৮)

সজিব খান, গলাচিপা (পটুয়াখালী): পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালীতে শনিবার রাতে এ ঘটনায় ওই গৃহবধূ বাদী হয়ে দুজনকে আসামি করে রাঙ্গাবালী থানায় একটি মামলা করেন। মামলার আসামিরা হলেন- একই ইউনিয়নের কাটাখালী গ্রামের মৃত আজাহার হাজির ছেলে সোহেল ও একই গ্রামের মৃত আব্দুল আলী ফরাজীর ছেলে সোহাগ ফরাজী। তবে এদের মধ্যে কাউকে এখনও গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ। এজাহারে উল্লেখ করা হয়, বসতঘর নির্মাণের জন্য ওই গৃহবধূর স্বামী প্রায় ১৫ দিন আগে আসামি সোহাগ ফরাজীর কাছ থেকে ছয় মাসের জন্য দেড়গুণ সুদে ১০ হাজার টাকা নেন। কিন্তু নির্ধারিত সময়ের আগেই শুক্রবার রাত ৮টার দিকে সোহাগ মোবাইলে ওই গৃহবধূকে ফোন দিয়ে বাড়ি আসার কথা বলেন। এ সময় তার স্বামীকে টাকা ফেরত দেয়ার জন্য চাপও দেন তিনি। তারা সেখানে না গেলে রাত ১টার দিকে সোহাগ এবং অপর আসামি সোহেল বাড়িতে এসে তার স্বামীকে জোরপূর্বক ভয়ভীতি দেখিয়ে ঘরের বাহিরে নিয়ে যায়। এর পর সোহাগ তার স্বামীকে আটকে রাখে এবং সোহেল গৃহবধূকে ঘরের মধ্যে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। একপর্যায় তারা চিৎকার দিলে আসামিরা পালিয়ে যায়।

এ ব্যাপারে রাঙ্গাবালী থানার ওসি মিলন কৃষ্ণ মিত্র বলেন, গৃহবধূ বাদী হয়ে দুজনের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন। আসামিদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে।

Print Friendly

Comments

comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.