এরশাদের বিয়ে নিয়ে ফেসবুকে ‘মিথ্যা প্রচার’

(Last Updated On: মে ১৩, ২০১৮)
জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ আবার বিয়ে করেছেন বলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ‘মিথ্যা প্রচার’ চালানোর অভিযোগ করেছেন তার জনসংযোগ কর্মকর্তা আব্দুর রহিম।
তিনি জানান, ফেসবুকে কতিপয় লোকজন আছেন, যারা বিনা বিচারে ট্রল করে মানুষের চরিত্র হননের জন্য তৈরি হয়ে থাকেন। এই ছবি দুটি ছড়িয়ে দিয়ে অনেকেই মজা লুটছেন যে এরশাদ নাকি আবার বিয়ে করেছেন।
তিনি আরও জানান, মূল ঘটনা হলো- এরশাদ একটি মেয়েকে ক্লাস ওয়ান থেকে মাস্টার্স পর্যন্ত লেখাপড়া করিয়েছেন। গতকাল সেই মেয়েটির বিয়েতে গিয়েছিলেন তিনি।
http://www.pbd.news
পিতা হিসেবে মেয়েটির বিয়ে দিলেন
এরশাদ শফিকুল ইসলাম সোহাগঃ  নিপা রানী কর্মকার নামে এক হিন্দু মেয়ের পিতা হিসেবে তার বিয়ের যাবতীয় ব্যয় বহন করেছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। শুধু ব্যয় বহন করেননি, নিজে বিয়েতে উপস্থিত থেকে পালিত কন্যা নিপাকে সোনার গহনা পরিয়ে আর্শীবাদ করেন তিনি। গতকাল শনিবার দিবাগত রাতে রাজধানীর ঢাকেশ্বরী জাতীয় মন্দিরে নিপার বিয়ে অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় এরশাদের সঙ্গে জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা এমপি, সুনীল শুভ রায়, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ জাতীয় পার্টির সাংগঠনিক সম্পাদক সুজন দে, নিপার জন্মদাতা পিতা নারায়ন কর্মকারসহ নিপার কয়েক শতাধিক আত্বীয়-স্বজন উপস্থিত ছিলেন। এদিকে নিপা রানী কর্মকারের পিতা হিসেবে এরশাদ নিজে মন্দিরে উপস্থিত হয়ে বিয়ে দেওয়ার খবর ছড়িয়ে পড়লে মন্দিরে ছুঠে আসেন বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদের কেন্দ্রীয় সভাপতি জয়ন্ত সেন দিপু, সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট তাপস পাল, ঢাকা মহানগরের সভাপতি দিপেন চ্যাটার্জী, সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট শ্যামল কুমার রায়, সাবেক রাষ্ট্রদূত নিম চন্দ্র ভেীমিক, সুব্রত চৌধুরী, জে এল ভৌমিক, নারাযণ সাহা মনিসহ বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ, ঢাকেশ্বরী জাতীয় মন্দির পরিচালনা কমিটির নেতৃবৃন্দ। এই সময় তারা হুসেইন মুহম্মদ এরশাদকে তার মহানুভতার জন্য ধন্যবাদ জানান। জানা গেছে, রাজধানীর তাঁতী বাজারের নিম্ন-মধ্য বিত্ত পরিবারের মেয়ে নিপা কর্মকার। নিপার জন্মদাতা পিতার নাম নারায়ন কর্মকার। নারায়ন কর্মকারে সঙ্গে এরশাদের সম্পর্ক দীর্ঘদিনের। সে সুবাদে নিপাকে ছোটবেলা থেকেই পিতৃস্নেহে বড় করেছেন এরশাদ। নিপাকে পড়াশুনা করিয়েছেন তিনি। একজন পিতা হিসেবে মেয়ের প্রতি যে দায়িত্ব পালন করা দরকার তার সবটুকুই করেছেন এরশাদ। সর্বশেষে রবিবার সোনা গহনা থেকে শুরু করে বিয়ের যাবতীয় খরচ বহন করে এরশাদ তার পালিত কন্যাকে স্বামীর ঘরে পাঠিয়ে দেন।
ফেইস বুক থেকে ,
Print Friendly

Comments

comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.