কারাগারে খালেদা জিয়ার ইফতার, সঙ্গে ফাতেমা

(Last Updated On: মে ১৯, ২০১৮)

রমজানের প্রথম দিন শেষে ইফতার করেন কারাবন্দি বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। এ সময় সঙ্গে ছিলেন তাঁর গৃহপরিচারিকা ফাতেমা বেগম।

গত ৮ ফেব্রুয়ারি জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দেন নিম্ন আদালত। এরপর থেকেই পুরান ঢাকার নাজিম উদ্দীন রোডের পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারে আছেন খালেদা জিয়া।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে কেন্দ্রীয় কারাগারের একজন কর্মকর্তা বার্তা সংস্থা ইউএনবিকে জানান, প্রথম রমজানে খালেদা জিয়ার ইফতারে ছিল ছোলা, পেঁয়াজু, মুড়ি, খেজুর, শরবত ও কিছু ফল।

এদিকে বিএনপির চেয়ারপারসনের একান্ত সচিব এ বি এম আবদুস সাত্তার অভিযোগ করেছেন, খালেদা জিয়ার পরিবারের সদস্যরা রমজানের প্রথম দিন তাঁর সঙ্গে ইফতারি নিয়ে দেখা করার চেষ্টা করেন। কিন্তু জেল কর্তৃপক্ষ সাক্ষাতের অনুমতি দেননি।

এ ছাড়া জাতীয়তাবাদী মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদক সুলতানা আহমেদ ও দলের নেতা কর্মীরা খালেদা জিয়ার জন্য ইফতার নিয়ে পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারের সামনে যান। তাঁদেরকেও অনুমতি দেওয়া হয়নি।

প্রতি বছর বিএনপি চেয়ারপারসন প্রথম রমজানের ইফতার করেন এতিম ছাত্রছাত্রী ও আলেমদের সঙ্গে। এবারও দলটি ঢাকার লেডিস ক্লাবে প্রথম রমজানের ইফতার অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। অনুষ্ঠানে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ‘আজকে অত্যন্ত ভারাক্রান্ত মন নিয়ে আমরা এই ইফতার মাহফিলে একত্রিত হয়েছি। প্রতি বছরে পহেলা রমজানে এই দেশে সবচেয়ে জনপ্রিয় নেতা তিনবারের প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া আলেম ওলামাদের সাথে ইফতার করেন। কিন্তু মিথ্যা মামলায় কারাগারে থাকায় এবার তিনি আমাদের সাথে নেই।’

গত ৮ ফেব্রুয়ারি জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দেন আদালত। এ মামলার অপর আসামি খালেদা জিয়ার বড় ছেলে ও বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানসহ বাকি পাঁচজনকে ১০ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

আদালতের অনুমতি নিয়ে খালেদা জিয়ার সঙ্গে কারাগারে থাকছেন ফাতেমা বেগম (৩৫)। ফাতেমা দীর্ঘদিন ধরে খালেদা জিয়ার গৃহপরিচারিকা হিসেবে কাজ করছেন।

Print Friendly

Comments

comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.