মুক্তিযোদ্ধার সম্মাননায় পতাকার বদলে চাটাই, একে অপরকে দুষছেন সবাই!

(Last Updated On: মে ২১, ২০১৮)

পাবনার বেড়া উপজেলার বীর মুক্তিযোদ্ধা তাহেজ উদ্দিন সরকারকে  জাতীয় পতাকার পরিবর্তে চাটাই দিয়ে মুড়ে গার্ড অব অনার দেয়ার বিষয়টি নিয়ে একে অপরকে দুষছেন। বিষয়টিকে এখন এখন বিষয়টিকে অনাকাঙ্খিত ভুল বলা হচ্ছে।

তবে বিষয়টি নিয়ে এখনও ক্ষোভ প্রকাশ করছেন মুক্তিযোদ্ধাসহ স্থানীয়রা। তারা এই অন্যায়ের সাথে যারা জড়িত তাদের শাস্তির দাবি জানিয়েছেন।

গত ১৮ মে মুক্তিযোদ্ধা তাহেজ উদ্দিন সরকার মৃত্যুবরণ করলে ১৯ মে বাদ যোহর তাকে দাফন করা হয়। সম্ভুপুরা গ্রামে তার নামাজের জানাযা অনুষ্ঠিত হয়। জানাযা শেষে তাকে বেড়া ইউএনও জনাব মাহবুব হাসানের নেতৃত্বে রাষ্ট্রীয় সম্মান গার্ড অব অনার প্রদান করা হয়। সেসময় জাতীয় পতাকায় আচ্ছাদিত থাকার পরিবর্তে তার মরদেহ চাটাই দিয়ে মোড়ানো ছিল।

দীর্ঘদিন বিভিন্ন রোগের সাথে লড়াই করে  গত ১৮ মে রাতে মৃত্যুর কাছে হার মানেন একাত্তরের রণাঙ্গণে দাপিয়ে বেড়ানো অকুতোভয় জাতির এই বীর সন্তান। মৃত্যুর সংবাদে শোকের ছায়া নেমে আসে সহযোদ্ধাসহ পাবনা জেলার বিভিন্ন অঙ্গণে। কিন্তু তাঁর শেষ শ্রদ্ধার এ দৃশ্য দেখে আরো বেশি ক্ষুদ্ধ হন জানাজায় উপস্থিত মুসল্লিরা।

এই বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা( ইউএনও) জনাব মাহবুব হাসান দায়িত্ব এড়িয়ে গিয়ে বলেন, সেখানে মুক্তিযোদ্ধারা ও স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার ছিলেন। তারা কেন পতাকার ব্যবস্থা করলেন না। একজন মুক্তিযোদ্ধাকে অসন্মান করার ধৃষ্টতার জন্য দায়ী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নিকট বিনীত আবেদন করছি।

অপরদিকে মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক উপজেলা কমান্ডার ইছাহাক আলী বলেন, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ভেঙ্গে দেয়ায় এর দায়িত্বে সেভাবে নির্দিষ্টভাবে কেউ নেই। কোন মুক্তিযোদ্ধা মারা গেলে গার্ড অনার যখন দেয়া হয় তখন আমরা যাই, কিন্তু এ বিষয়ে দায়িত্ব পালন করে মুক্তিযোদ্ধা অফিসে থেকে।

তিনি আরও বলেন, বিষয়টি অনাকাঙ্খিত ও অনিচ্ছাকৃত ভুল হয়েছে। উনাকে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফন করা হয়েছে। গার্ড অব অনার দেয়া হয়েছে। কিন্তু ভুলক্রমে জাতীয় পতাকাটাই আনা হয়নি। একদম শেষ মুহূর্তে বিষয়টি আমিসহ প্রশাসনের কর্মকর্তাদের নজরে আসে। তখন জানতে চাইলে এ বিষয়ের সাথে সংশ্লিষ্টরা জানান পতাকা আনতে মনে নাই।

‘কিন্তু তীব্র রোদে ততক্ষণে লাশ প্রায় ফুলে উঠেছিল। তাই পতাকার জন্য অপেক্ষা না করে চাটাই দিয়েই গার্ড অব অনার দেয়া হয়,’ বলে দাবি করেন তিনি।

এদিকে ঘটনার ধিক্কার জানিয়ে  মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক গণমাধ্যমকে বলেছেন,  কর্তব্যে অবহেলা এবং গাফিলতির প্রমাণ মিললে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। প্রাথমিকভাবে সেখানে দায়িত্বরত সরকারি কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে সাথে সাথে ব্যবস্থা গ্রহণ করে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হবে। পরে কমিটি করে তদন্তে মাধ্যমে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

প্রচ্ছদ

Print Friendly

Comments

comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.