যৌন পেশায় ব্রিটেনের ছাত্র-ছাত্রীরা!

(Last Updated On: জুন ১১, ২০১৮)

ব্রিটেনে অর্থাভাবে অনেক ছাত্র-ছাত্রীরা বেছে নিচ্ছে পতিতাবৃত্তি। পেশাদার পতিতাদের ব্যাপারে ভালো পরিসংখ্যান থাকলেও, যেসব শিক্ষার্থী এ পেশা বেছে নেয়, তাদের বিশ্বাসযোগ্য পরিসংখ্যান রয়েছে খুব কম। তারা অনেকই পর্ন ছবিতে কাজ করে শিক্ষাব্যয় মেটানোর চেষ্টা করছেন।

সম্প্রতি ব্রিটেনের লিডস বিশ্ববিদ্যালয়ের এক গবেষণার মাধ্যমেই বেরিয়ে এসেছে এই তথ্য।

গবেষণায় দেখা গেছে, নগ্ন ডান্স ক্লাবের এক-তৃতীয়াংশেরও বেশি সদস্য বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী।

রিপোর্টে বলা হয়েছে, উচ্চশিক্ষার জন্য খরচরে মাত্রা অনেক বেড়ে গেছে। পাশাপাশি শিক্ষাখাতে সরকারি ঋণ সুবিধার পরিমাণও অনেক কম হয়ে গেছে। এই কারণেই অনেক ছাত্র-ছাত্রী পড়াশোনার খরচ জোগাড়ের উদ্দেশ্যে পর্ন ছবি বা নগ্ন ডান্স ক্লাবে কাজ করতে বাধ্য হচ্ছেন।

রিপোর্টে আরও বলা হয়েছে যে, পরিস্থিতি একটাই সংবেদনশীল যে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হওয়ার আগেই অনেকে নগ্ন নৃত্যের চর্চা শুরু করে যাতে প্রয়োজনের সময় খুব সহজেই অর্থের ব্যবস্থা করা যায়।

২০১২ সালে ব্রিটিশ সরকার দেশে উচ্চশিক্ষা ক্ষেত্রে টিউশন ফি ব্যাপক হারে বাড়িয়ে দেয়, যা প্রায় ৯,০০০ পাউন্ডের কাছাকাছি। মনে করা হচ্ছে, এরই প্রভাবে বেশির ভাগ ছাত্র-ছাত্রীর এই ধরনের কাজ বেছে নেওয়ার প্রবণতা বৃদ্ধি পেয়েছ।

প্রসঙ্গত, টিউশন ফি বাড়ানোর প্রতিবাদে সে সময় ব্রিটিশ সরকারের বিরুদ্ধে ব্যপক ছাত্র বিক্ষোভ হয়েছিল।

বিডি প্রতিদিন/

Print Friendly

Comments

comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.