খালেদা জিয়ার ঘুষ নেওয়ার প্রমাণ পেয়েছে এফবিআই ও কানাডার পুলিশ

(Last Updated On: নভেম্বর ২৩, ২০১৮)
সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়াসহ তাঁর সময়ের সরকারের এবং দলের কিছু প্রভাবশালী ব্যক্তিকে কানাডিয়ান কম্পানি নাইকো ঘুষ দিয়েছিল বলে প্রমাণ পেয়েছে এফবিআই ও কানাডার পুলিশ। অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম এ তথ্য জানিয়েছেন।
তিনি জানান, এফবিআই ও কানাডার পুলিশের পাঠানো তদন্ত প্রতিবেদনটি ঢাকার ৯ নম্বর বিশেষ জজ আদালতে গতকাল বৃহস্পতিবার তিনি উপস্থাপন করেছেন।

এ বিষয়ে শুনানির জন্য আদালত আগামী ৯ ডিসেম্বর পরবর্তী দিন ধার্য করেছেন বলে জানান অ্যাটর্নি জেনারেল।

গতকাল ওই প্রতিবেদন আদালতে দাখিল করার পর রাত ১০টায় এক সংবাদ সম্মেলনে এ বিষয়ে সাংবাদিকদের জানান অ্যাটর্নি জেনারেল। বেইলি রোডে মিনিস্টার্স অ্যাপার্টমেন্টে তাঁর সরকারি বাসভবনে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

মাহবুবে আলম জানান, এফবিআই ও কানাডার পুলিশ সম্প্রতি এই প্রতিবেদনটি অ্যাটর্নি জেনারেলের কার্যালয়ে পাঠিয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে অ্যাটর্নি জেনারেল বলেন, বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া নাইকো দুর্নীতি মামলার প্রধান আসামি। বিএনপি সরকারের আমলে নাইকো দেশের কয়েকটি গ্যাস ফিল্ড লিজ নেওয়ার চেষ্টা করছিল। কিন্তু নাইকো নানা রকম অসৎ পন্থা অবলম্বন করে তৎকালীন কিছু ক্ষমতাসীন ব্যক্তি বিশেষ করে হাওয়া ভবনকে প্রভাবিত করে ছাতক গ্যাস ফিল্ড গ্রহণ করেছিল। এটাকে পরিত্যক্ত গ্যাস ফিল্ড হিসেবে লিজ দেওয়া হয়েছিল; কিন্তু আসলে এটা পরিত্যক্ত ছিল না।

ঘুষের বিনিময়ে ওই গ্যাস ফিল্ড লিজ দেওয়া হয়েছিল দাবি করে অ্যাটর্নি জেনারেল বলেন, ‘কানাডার পুলিশ এই দুর্নীতির সন্ধান পাওয়ার পর তদন্ত করে। পরে দুর্নীতি দমন কমিশনও ২০০৮ সালে মামলা করে। এরপর ২০১৭ সালে এফবিআই কর্তৃপক্ষ ও কানাডাকে অনুরোধ করেছিলাম তারা যে তথ্য পেয়েছে তা যেন আমাদের পাঠায়। কানাডিয়ান মাউন্টেড পুলিশ ও এফবিআই স্পেশাল এজেন্ট তদন্ত করে যে তথ্য পেয়েছে, তা আমাদের হস্তগত হয়েছে। ’

সূত্র- কালের কন্ঠ

Print Friendly, PDF & Email

Comments

comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.