মুন্সীগঞ্জ-২: টাকা বিতরণকালে বিএনপি প্রার্থীকে গণধোলাই

(Last Updated On: ডিসেম্বর ২৫, ২০১৮)

যুগান্তর ঃ মুন্সীগঞ্জে-২ (টঙ্গীবাড়ী-লৌহজং) আসনের বিএনপি প্রার্থী ও বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির কোষাধ্যক্ষ মিজানুর রহমান সিনহা উপজেলার বিভিন্নস্থানে ভোটারদের মধ্যে অবৈধ টাকা বিতরণকালে গণধোলাইয়ের শিকার হয়েছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।
রোববার গভীর রাতের এ ঘটনায় মিজান সিনহাসহ তার ৪ কর্মচারী আহত হয়েছেন।

স্থানীয় সূত্র জানায়, রাত সাড়ে ১২টার দিকে টঙ্গীবাড়ী উপজেলার বাহেরপাড়া এলাকায় গাড়ি নিয়ে এসে টাকা বিতরণকালে জনগণ মিজানুর রহমান সিনহাকে আটক করে গণধোলাই দেয় বলে অভিযোগ করেন নৌকা প্রতীকের প্রার্থী সাগুফতা ইয়াসমিন এমিলি।
এ ঘটনায় মিজান সিনহাকে রাজধানীর এ্যাপোলো হাসপাতাল ভর্তি করা হলে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে বর্তমানে তিনি রাজধানীর বাড়িতে ফিরেছেন।
বাকি আহতরা হলেন মামরুল, সোলাইমান, আব্দুল মতিন, স্বপন। তাদের সবাই ঢাকা মেডিকেল কলেজে ভর্তি রয়েছে।
এ ব্যাপারে সাগুফতা ইয়াসমিন এমিলি বলেন, মিজান সিনহা রাতের অন্ধকারে ভোটারদের মধ্যে অবৈধভাবে টাকা বিতরণ করছিলেন। এ সময় স্থানীয় জনগণ তাকে গণধোলাই দিয়েছে। একই রাতে ধানের শীষের নেতাকর্মীরা আমার নৌকা প্রতীকের ৫টি ক্যাম্প ভাঙচুর করেছে।

এদিকে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হাফীজ আল আসাদ বারেক বলেন, টঙ্গীবাড়ী উপজেলার শিমুলিয়া, মুটুকপুর, চিত্রকরা, তৈলকাই, দরজারপাড় আওয়ামী লীগের ক্যাম্পে আগুন দেয়ার ঘটনা ঘটেছে। বিএনপির নেতাকর্মীরা রাতের অন্ধকারে ক্যাম্পে আগুন ধরিয়ে দেয়। তবে মিজান সিহনহার গাড়িতে কারা হামলা করেছে তা বলতে পারব না। ঘটনাটি সকালে শুনেছি।
তিনি বলেন, তাদের নিজেদের আন্তকোন্দলের কারণে এর আগে নিজেদের প্রার্থীর মনোনয়নপত্র জমা দিতে গিয়ে দুপক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে।
টঙ্গীবাড়ী উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক কবির হোসেন মিন্টু বলেন, নির্বাচনী প্রচারণার জন্য এলাকায় আসার পথে দুর্বৃত্তের হামলার স্বীকার মিজান সিনহা।
এ ব্যাপরে টঙ্গীবাড়ী থানার ওসি শাহ মো. আওলাদ হোসেন জানান, জানতে পেরেছি রাতে কয়েকটি মোটরসাইকেল ও একটি পিকআপযোগে ধানের শীষ স্লোগান দিয়ে উপজেলার কয়েকটি আওয়ামী লীগ ক্যাম্পে আগুন দেয়ার ঘটনা ঘটে। এ নিয়ে রাতে আওয়ামী লীগ নেতাকর্মী ও স্থানীয়দের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছিল।।
এ নিয়ে রাতে আওয়ামী লীগ নেতাকর্মী ও স্থানীয়দের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছিল।
তিনি বলেন, রাত সাড়ে ১২টায় ২টি কালো গ্লাসে ঢাকা হায়েচ গাড়ি বাহেরপাড়া হয়ে উপজেলা দিকে আসছিল। এ সময় স্থানীয় জনগণ গাড়ি দুটিকে সিগন্যাল দিলে তারা না থামালে উত্তেজিত জনতা গাড়িতে ইটপাটকেল মারে। পরে স্থানীয়রা দেখতে পায় ওই গাড়িতে মিজান সিনহা রয়েছে। এ ব্যাপারে কোনো অভিযোগ পাইনি।

Print Friendly, PDF & Email

Comments

comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.