মুসলমানরা সন্ত্রাসী নয় : ডিম বালক

(Last Updated On: মার্চ ১৯, ২০১৯)

নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চ মসজিদে হামলার বিষয়ে সিনেটর ফ্রেজার অ্যানিং মুসলিমবিদ্বেষী মন্তব্য করায় তার মাথায় ডিম ভাঙেন এক তরুণ।

এ ঘটনার ভিডিও ছড়িয়ে পরায় ১৭ বছর বয়সী তরুণ কনোলি অনলাইন হিরো হিসেবে সারা বিশ্বে আলোচনায় এসেছেন।

১৭ বছর বয়সি ওই কিশোরের নাম উইল কনোলি। কিশোরটি অস্ট্রেলিয়ার বাসিন্দা।

ঘটনার পর টুইটারে কনোলি লিখেছেন, ‘মুসলমানরা সন্ত্রাসী নয়। সন্ত্রাসবাদের কোনো ধর্ম নেই।গতকাল শনিবার এক অনুষ্ঠানে অস্ট্রেলিয়ার সিনেটর ফ্রেজার অ্যানিংয়ের মাথায় ডিম ভাঙে ওই কিশোর। শুধু তাই নয় বিষয়টি নিজের মোবাইলে ভিডিও করে কনোলি।

নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে খ্রিস্টান সন্ত্রাসবাদী কর্তৃক নামাজরত মুসুল্লিদের উপর বর্বরোচিত হামলার পর মুসলমানদের নিয়ে বিরূপ মন্তব্য করেন সিনেটর ফ্রেজার অ্যানিং।

এর পরই বেশ তোপের মুখে পড়েন ফ্রেজার অ্যানিং। এরই প্রতিবাদে গতকাল শনিবার ওই কাণ্ডটি ঘটায় কিশোর উইল কনোলি। তাকে পুলিশ আটক করে পরে ছেড়ে দেয়। তবে সামাজিক মাধ্যমে এরই মধ্যে ওই কিশোরকে নিয়ে রীতিমত হৈ চৈ শুরু হয়ে গেছে।

নিজের টুইটারে কনোলি ওই ঘটনা নিয়ে মন্তব্য করেছেন। কনোলি লিখেছেন, ‘ওই মুহূর্তে মানুষ হিসেবে আমি গর্বিত। আপনাদের বলতে চাই, মুসলমানরা সন্ত্রাসী নয় এবং সন্ত্রাসবাদের কোনো ধর্ম নেই। যারা মুসলমানদের সন্ত্রাসী সম্প্রদায় মনে করে, তাদের মাথা অ্যানিংয়ের মতোই শূন্য।’

গত শুক্রবার (১৫ মার্চ) নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে দু’টি মসজিদে খ্রিস্টান সন্ত্রাসবাদী কর্তৃক হামলায় ৫০ জন নিহত ও অর্ধশতাধিক আহত হন। এখনও ৩৪ জনকে ক্রাইস্টচার্চ হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে, তাদের মধ্যে ১২ জন নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে রয়েছেন।

স্থানীয় সময় গত শুক্রবার বেলা দেড়টার দিকে আল নূর মসজিদে জুমার নামাজ আদায় করতে যাওয়া মুসল্লিদের ওপর প্রথমে হামলা চালানো হয়।

এর একটু পরে লিনউড মসজিদে দ্বিতীয় হামলা হয়। ফেসবুকে লাইভে গিয়ে আল নূর মসজিদে স্বয়ংক্রিয় রাইফেল নিয়ে হামলা চালানো হয়।

Print Friendly, PDF & Email

Comments

comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.