ডাঃ ফারহানা মোবিনের ” স্বাধীনতা সংসদ সম্মাননা” অর্জন

(Last Updated On: মার্চ ২১, ২০১৯)

 স্বাধীনতা সংসদ একটি অরাজনৈতিক সামাজিক সংগঠন । ১৯৯১ সাল থেকে এই সংগঠন বিভিন্ন ধরনের সামাজিক কর্মকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত । দেশের কল্যাণে , মানবতার কল্যাণে কাজ করে যাচ্ছে অবিরত। আন্তর্জাতিক নারী দিবস২০১৯ উপলক্ষ্যে বিভিন্ন কর্মক্ষেত্রে বিশেষ অবদানের জন্য আলোকিত নারীদের সম্মাননা প্রদান করেছে স্বাধীনতা সংসদ। গত ১৬ মার্চ শনিবার বাংলাদেশ এর রাজধানীর সেগুন বাগিচার রয়েল চাইনিজ রেস্তোরাঁয় “জাতীয় উন্নয়নে নারী সমাজ” শীর্ষক আলোচনা সভা, মেহেদী উৎসব ও পুরষ্কার বিতরণের এই অনুষ্ঠানটি আয়োজিত হয়।

অনুষ্ঠানটির সভাপতিত্ব করেন সৈয়দ মারগুব মোর্শেদ, প্রধাণ উপদেষ্টা, স্বাধীণতা সংসদ ও সাবেক তথ্য সচিব। স্বাধীনতা সংসদ তরুণদের বিশেষ অবদানের জন্য প্রতিবছর সম্মাননা প্রদান করে আসছে। প্রতিষ্ঠানটি স্বাধীনতার চেতনাকে ধারণ করে তরুণদের নিয়ে কাজ করছে। এর প্রতিষ্ঠাতা ও পরিচালক শাহেদ আহমেদ। অনুষ্ঠানের শুরুতেই স্বাধীনতা যুদ্ধে শহীদ এবং গত ১৫মার্চ নিউজিল্যান্ডের মসজিদে অতর্কিত হামলায় নিহতদের প্রতি শ্রদ্ধা রেখে ১ মিমিট নীরবতা পালন করা হয়। এরপর আলোচনা সভা, পুরষ্কার বিতরণী, মেহেদী উৎসব ও নৈশ ভোজের আয়োজন করা হয়। পুরষ্কার দেয়া হয় আলোকিত নারী উদ্যোক্তাদের, নারী সাংবাদিক এবং একজন সফল তরুণ চিকিৎসকে। চিকিৎসক, লেখক ও সমাজ সেবক ফারহানা মোবিনকে তরুণ আলোকিত চিকিৎসকের সম্মাননা প্রদান করেছে স্বাধীনতা সংসদ। ডাঃ ফারহানা মোবিন রাজশাহী তে জন্ম গ্রহণ করেন । রাজশাহী তে স্কুল কলেজে থাকাকালিন সময় থেকেই তিনি বহুবিধ সামাজিক, সংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত ছিলেন । তিনি নগরীর স্কয়ার হসপিটালের গাইনি বিভাগের চিকিৎসক ছিলেন । বর্তমানে তিনি উচ্চতর ডিগ্রি অর্জনের জন্য অধ্যায়নরত । তিনি দেশ বিদেশের অগণিত নিউজপেপার এর লেখক ( অনলাইন ও হার্ডকপি ) । তিনি বহুবিধ সামাজিক কর্মকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত । এই পর্যন্ত তিনি চারটি বই লিখেছেন । তিনি সব ধরনের ও সব বয়সের মানুষের জন্য লেখেন । দেশের বিভিন্ন জায়গায় বিভিন্ন সমাজ সেবীদের সাথে বিনামুল্যে মেডিকেল ক্যাম্প করেন তিনি। তিনি স্বাধীনতা সংসদসহ তার সকল সহকর্মী, দেশ বিদেশের সকল সম্পাদক, প্রকাশক, সামাজিক কর্মকান্ডে তার সাথে জড়িত সকলকে, পরিবারের সদস্যদের এবং শুভাকাঙ্ক্ষীদের ধন্যবাদ জানান।

তিনি”  দেশপ্রিয়  নিউজের  একজন নিয়মিত লেখক । তিনি এই নিউজ পোর্টালের এর সকল কর্মীর প্রতি অসীম কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন । তিনি বলেন, ” সবার আগে আমি একজন ভাল মানুষ হয়ে উঠতে চাই, এজন্য সকলের কাছে দোয়াপ্রার্থী”। ” সভ্যতার সৃষ্টিলগ্ন থেকে নারী তার অবদান রেখেছে কর্মক্ষেত্রে। পুরুষের পাশাপাশি নারীরাও দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাবে। শ্রদ্ধা জানাই পৃথিবীর প্রতিটি নারীকে,” বলেছেন অনুষ্ঠানের প্রধাণ অতিথি, বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের  বিচারপতি সালমা মাসুদ চৌধুরী।

এছাড়া অনুষ্ঠানে প্রধাণ আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অধ্যাপক ড. আ ন ম মোশকাত উদ্দিন,  উপাচার্য, সাউথ ইস্ট ইউনিভার্সিটি। তিনি বলেন, “আমরা নারী দিবস নয়, বিশ্ব মানব দিবস পালন করতে চাই। কারণ নারীরা পুরুষদের থেকে আলাদা নয়। এমন কোনো প্রফেশন নেই, যেখানে নারী নেই। প্রতিটি সেক্টরে নারীদের সফলতার গল্প আছে।” অনুষ্ঠানে মমতাজ হারবালের পক্ষ থেকে সকল নারীকে মেহেদী উপহার দেয়া হয়। সবশেষে একত্রে নৈশ ভোজের মাধ্যমে সমাপ্ত হয় অনুষ্ঠানটির। ডাঃ ফারহানা মোবিন বাংলা টিভি থেকে প্রচারিত ” প্রবাসীর ডাক্তার ” নামক অনুষ্ঠান এর উপস্থাপক । উল্লেখ্য তিনি মরণোত্তর তার দুই চোখ, হার্ট, দুই কিডনি , ফুসফুস , লিভার মানবতার কল্যাণে দান করেছেন ।

Print Friendly, PDF & Email

Comments

comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.