অমানবিকতার অদৃশ্যতায় মানবতার দ্বারও উন্মুক্ত রয়

(Last Updated On: March 29, 2019)

জসিম উদ্দিনঃ  বনানী ট্রাজেডি আবারও আমাদের সাবধানতার ইঙ্গিত দিয়ে গেলো।ফেইসবুক ভাইরাল মোটিভেট যেন আমাদের রোগ হয়ে দাঁড়িয়েছে।কিন্তু অবাক হলাম কেউ বললো না যে মানুষ মানুষের জন্য কতটা উদার হতে পারে তার গল্প।আমার অফিস বনানীতে আজ অনেক বছর।ঢাকা শহরের বানিজ্য তথা কর্পোরেট এরিয়ার অন্যতম একটি জায়গা বনানী।সেখানে খেয়াল করে দেখুন ২০ তলার উপরে বিল্ডিং রয়েছে কয়টি।

ধরে নিলাম ১৫ থেকে ২০ টি।তার পর ছোট্ট করে হিসেব করলে সেখানে ১০ থেকে ১৫ হাজার মানুষও যদি অফিস করে তাহলে একটি দূর্ঘটনায় জনসমাগম হবেই তা নিশ্চিত।আক্রান্ত বিল্ডিং সহ আশপাশ মিলিয়ে লোকারন্য হয়েছেই উৎসুকতার মাঝে আশেপাশের পরিচিত স্বজন দের জন্য।এখানে বিপদের এ মুহূর্তে কেউ কারও কে ফেলে যেতে পারে না।আমি কেন স্বীকার করি না যে আমাদের এখনও একটি মাল্টিপলিটন সিটিতে বিশেষ করে রাজধানী ঢাকায় আগুনের মত ভয়াবহ দূর্ঘটনার জন্য নিরাপত্তা বলয়ে পর্যাপ্ত সরন্জামাদি তথা তাৎক্ষনিক মোকাবেলার ব্যবস্হা নেই।আজ মানবতা দেখেছি সবাই সবার হাত বাড়িয়ে দিয়েছে।

এই দূর্ঘটনা মোকাবেলার বিষয় টা দাঁয় এড়াতে মানুষ কে দোষারোপ করা যাবে না।উপস্হিত প্রতিটি মানুষ সেখানে উদগ্রিব ছিল উদ্ধার তথা আগুন নেভানোর জন্য।পর্যাপ্ত পানির অভাব টাও কিন্তু অনেকে এড়িয়ে গেলো।বিশুদ্ধ সত্যটা বলতে হবে।ছাত্ররাজনীতি করেছি সত্যের দ্বায় নিয়ে।আজ আমারও পরিবার আছে একটি সন্তান আছে কোথায় যে আমরা নিরাপদ সে প্রশ্ন খুঁজে ফিরি।

আজকের বনানী ট্রাজেডি কে পুরান ঢাকার মত ধামাচাপার হয়তো সুযোগ নেই।প্রয়োজন পর্যাপ্ত আগুন দূর্ঘটনা মোকাবেলার ব্যবস্হা প্রয়োজন সঠিক দিকনির্দেশনা। ভয় হয় দেশরত্নের এতো উন্নয়নের ভীড়ে কোথায় না যেন ছোট্ট ভুলে সব ফিকে হয়ে যায়।এখনও সময় আছে আমাদের সজাগ হতে হবে।এই আগুন মহামারিতে রুপ নেবার আগে তা থমকে দিতে হবে।মানুষের জীবন বাঁচানোর জন্য লাফ দিয়ে পড়া সে দৃশ্য আমাকে নাড়া দিয়ে যায় আমরা কি অন্ধকারেই না আছি। আজকে সেখানে উপস্হিত থাকা মানবতার হাত বাড়িয়ে দেয়া সবাই কে কৃতজ্ঞতা ভালবাসা যে ফায়ার সার্ভিস আর্মি সহ সকল উদ্ধার প্রতিষ্ঠানের বহু অপারগতা তথা দূর্বলতার মাঝেও মানুষ মানুষের জন্য দাঁড়িয়েছে মানবতায়। সবকিছু এক চোখা হলে হবে না। মৃত্যু বরনকারী সবার আত্মার শান্তি কামনা করি সেই সাথে দূর্ঘটনায় কবলিত সকলের সুস্হতা। আমাদের সজাগ হতে হবে।

Print Friendly, PDF & Email

Comments

comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.