ব্যাপক সমালোচনার মুখে ক্রিকেট দলের জার্সি বাতিল

(Last Updated On: April 30, 2019)

ব্যাপক সমালোচনার মুথে বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের জার্সি বাতিলের ঘোষণা দিলেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন । আসন্ন বিশ্বকাপ উপলক্ষ্যে সোমবার জাতীয় দলের জার্সি উন্মোচন করা হয় । জার্সিতে লাল রং না থাকায় এ নিয়ে ব্যাপক সামালোচনা হয়। এরি প্রেক্ষিতে সোমবার রাতে জার্সি বাতিলের ঘোষণা দেয় বিসিবি প্রধান।

এরআগে সোমবার মিরপুর জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টাইগারদের বিশ্বকাপ জার্সি উম্মোচন করা হয় । এর ছবি প্রকাশিত হওয়ার পরই আলোচনা-সমালোচনার ঝড় বয়ে যায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে। পাওয়া গেছে মিশ্র প্রতিক্রিয়া। বেশিরভাগ সমর্থকেরই পছন্দ হয়নি মাশরাফীদের বিশ্বকাপ জার্সি। অনেকেই আবার জার্সির সঙ্গে খুঁজে পেয়েছেন ভিন্ন দেশের জার্সির মিল।

তবে বিষয়টি উড়িয়ে দিয়েছেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। বলেছেন, জার্সির ডিজাইন করা হয়েছে ক্রিকেটারদের পছন্দেই।

এই জার্সিটা গায়ে জড়িয়েই বিশ্ব জয়ের লড়াইয়ে নামবে টাইগাররা। আনুষ্ঠানিক লোগো উন্মোচনে ক্রিকেটারদের হাসিমুখ বলছে, সবাই শতভাগ প্রস্তুত।

জার্সি নিয়ে ক্রিকেটারদের পছন্দ-অপছন্দ জানা যায়নি, তবে টাইগার ক্রিকেটের সমর্থকরা যে তাতে খুব একটা সন্তুষ্ট নন, সেটি পরিষ্কার।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোয় সমর্থকরা তাদের ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন। জার্সিতে অনেকেই দেশের পতাকা খুঁজেছেন, না পেয়ে হতাশ হয়েছেন।

কেউ কেউ একধাপ বাড়িয়ে খুঁজে নিয়েছেন ভীনদেশের জার্সির সঙ্গে সাদৃশ্য। ক্রিকেটের সঙ্গে রাজনীতি জড়াতেও দ্বিধাবোধ করেননি সমর্থকরা।

বিপরীত চিত্রও আছে। সমর্থকদের অনেকেই জানিয়েছেন তাদের নিরঙ্কুশ সমর্থন, দলকে জানিয়েছেন শুভকামনাও। জার্সিতে দেশপ্রেম না খুঁজে মাঠের লড়াইয়ে ক্রিকেটারদের শতভাগ চাইলেন। দল জিতলেই তো জিতে যাবে বাংলাদেশটাই!

আলোচনা-সমালোচনায় অবশ্য কান দিচ্ছেননা বিসিবি সভাপতি। জানালেন, ক্রিকেটারদের পছন্দেই হয়েছে বিশ্বকাপের জার্সি।

বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন বলেন, জার্সিটা ভালোই লেগেছে। আগে ভালো করে দেখিনি। এখন দেখলাম। প্লেয়ারদের মতামত নিয়ে এটা চূড়ান্ত করা হয়। ওরা যেহেতু খুশি, আমিও খুশি।

আলোচনার মূল খোরাক, সবুজ জার্সিতে লালের অনুপস্থিতি। সেটি রাখার চেষ্টা হয়নি তাও কিন্তু নয়। জার্সি প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান আর বিসিবির সূত্রে জানা গেছে, সবুজ জার্সিতে দেশের নামটি রাখা হয়েছিল লাল রংয়েই। তবে আইসিসির নির্দেশনা মেনেই শেষ পর্যন্ত রাখা যায়নি সেটি।

নানা মুনীর নানা মত থাকতে পারে। ভক্ত সমর্থকদের প্রতিক্রিয়া হতে পারে নানা রং-ঢংয়ের। তবে মাঠে যারা খেলবেন তাদের কাছে এই জার্সিটা সম্মানের, সেই সম্মানটা দেশেরও। আর সেই জার্সি গায়ে মেখেই সমর্থকদের মুখে হাসি ফোটাক মাশরাফী-সাকিব-তামিমরা। সেটাই সবার চাওয়া।

আমাদের সময় ডট কম:

Print Friendly, PDF & Email

Comments

comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.