ইইউ-ব্রিটেন ব্রেক্সিট সমঝোতা

(Last Updated On: October 18, 2019)

দীর্ঘ টানাপড়েন আর অনিশ্চয়তার পর ব্রেক্সিট চুক্তির বিষয়ে ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের (ইইউ) সঙ্গে একটি সমঝোতায় পৌঁছেছে যুক্তরাজ্য। বৃহস্পতিবার বেলজিয়ামের রাজধানী ব্রাসেলসে ইউরোপীয় নেতাদের এক বৈঠকের আগে দুই পক্ষের প্রতিনিধিরা চুক্তির বিষয়ে ঐকমত্যে পৌঁছেন। বিবিসি।

দুই পক্ষের প্রতিনিধিরা এখন ওই আইনি দিকগুলো নিয়ে কাজ করছেন। তবে চূড়ান্ত চুক্তি হওয়ার আগে তাতে ব্রিটিশ পার্লামেন্ট ও ইউরোপিয়ান পার্লামেন্টের অনুমোদন নিতে হবে।

আজ ব্রিটিশ পার্লামেন্টের বিশেষ অধিবেশন বসবে। ৩১ অক্টোবরে প্রক্রিয়ামাফিক ব্রেক্সিট সম্পন্ন করার পথ সুগম করতে চুক্তির বিষয়ে অনুমোদন পাওয়ার আশা করছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। তিনি টুইটারে বলেছেন, ‘দারুণ একটা সমঝোতায় আমরা পৌঁছেছি, পরিস্থিতির ওপর নিয়ন্ত্রণও ফিরেছে।’

ইউরোপিয়ান কমিশনের প্রেসিডেন্ট জ্যঁ ক্লদে জাঙ্কার এক চিঠিতে বলেছেন, ইইউর ২৭ সদস্যরাষ্ট্রকে চুক্তিতে অনুমোদন দেওয়ার সুপারিশ করবেন তিনি। কারণ তিনি বলেন, ব্রেক্সিট প্রক্রিয়া সম্পন্ন করার শেষ সময় এখনই।

তবে উত্তর আয়ারল্যান্ডের ডেমোক্র্যাটিক ইউনিয়নিস্ট পার্টি (ডিইউপি) নতুন ব্রেক্সিট চুক্তি সমর্থন করবে না। বিবিসির রাজনীতিবিষয়ক প্রধান সংবাদদাতা ভিকি ইয়াং সে রকমই জানিয়েছেন। তিনি বলেন, ঊর্ধ্বতন ডিইউপি এমপিরা ব্রিটিশ পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ হাউস অব কমনসে চুক্তি নিয়ে আলোচনার জন্য বৈঠক করেছেন। কিন্তু এর পক্ষে তারা ভোট দেবেন না।

বিরোধী দল লেবার পার্টির নেতা বলেছেন, সাবেক প্রধানমন্ত্রী তেরেসা মে যে ব্রেক্সিট চুক্তি করেছিলেন নতুন চুক্তি তার চেয়েও বেশি খারাপ। ফলে এমপিদের এটি প্রত্যাখ্যান করা উচিত।

কিন্তু ইউরোপিয়ান কমিশনের প্রেসিডেন্ট জাঙ্কার বলছেন, নতুন চুক্তি ‘সুষ্ঠু এবং ভারসাম্যপূর্ণ’। জাঙ্কার এবং জনসন দুজনই নিজ নিজ পার্লামেন্টকে চুক্তিতে সমর্থন দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন।

পরবর্তী পদক্ষেপে কী করা হবে তা নিয়ে আলোচনা করতে হাউস অব কমন্সে শনিবার বাড়তি কোনো অধিবেশন বসবে কিনা সে প্রশ্নে ব্রিটিশ এমপিরা পরে ভোটাভুটি করবেন।

অধিবেশন বসার বিষয়টি ভোটে অনুমোদন পেলে সরকার তখন চুক্তির ওপর ভোট অনুষ্ঠান করতে পারবে বলে জানিয়েছেন কেবিনেট অফিস মিনিস্টার মাইকেল গভ।

২০১৬ সালে একটি গণভোটের মাধ্যমে ইইউ থেকে বের হয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় যুক্তরাজ্য। আগামী ২৯ মার্চ যুক্তরাজ্য আনুষ্ঠানিকভাবে ইইউ থেকে বের হয়ে যাবে।

ব্রেক্সিট কার্যকর হওয়ার আগেই দুই ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীকে ক্ষমতা ছাড়তে হয়েছেÑ প্রথমে ডেভিড ক্যামেরন এবং পরে তেরেসা মে।

সূত্র – দৈনিক আমাদের সময়

Print Friendly, PDF & Email

Comments

comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.