মদ খেয়ে জন্মদিন সেলিব্রেট, প্রাণ গেল ৩ বন্ধুর

(Last Updated On: January 20, 2020)

কুষ্টিয়ায় বন্ধুর জন্মদিনে কোমল পানীয়ের সাথে অ্যালকোহল (মদ) মিশ্রণ পান করে তিন কলেজ ছাত্র মারা গেছে। এই ঘটনায় অসুস্থ রয়েছে আরও তিনজন।

মৃতরা হলেন- শহরের আমলাপাড়া এলাকার মৃত মফিজ রহমানের ছেলে ও বিকেএসপির বাস্কেট বল খেলোয়াড় জিহাদুর রহমান সাজিদ (২০), থানাপাড়া এলাকার সাগর হোসেনের ছেলে ফাহিম হোসেন (২১) এবং একই এলাকার আরমান ইসলামের ছেলে পাভেল ইসলাম (২৩)।

অপর তিনজন- শান্ত, আতিকুল ও সুরুজদের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য রাজশাহী মেডিকেলে প্রেরণ করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেন কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. তাপস কুমার সরকার।

বৃহস্পতিবার বিকেল পৌনে ৫টা থেকে রাত সাড়ে ৭টার মধ্যে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাদের মৃত্যু হয় বলেও জানান তিনি।

তিনি বলেন, বিকালে ছয় বন্ধু একসাথে হাসপাতালে এসে জরুরি বিভাগে কর্তব্যরত চিকিৎসককে তাদের অস্থির লাগার কথা জানান। প্রথমে ডিম খাওয়ার কথা বললেও পরে তারা চিকিৎসককে স্পিড ক্যানের সাথে অ্যালকোহল মিশিয়ে সেবনের বিষয়টি জানায়।

নিহতদের পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, বন্ধু ফাহিমের জন্মদিন উপলক্ষে সাজিদ, পাভেল, সুরুজ, শান্তি ও আতিকুল বিকালে শহরের পাবলিক লাইব্রেরি মাঠে একসাথে মিলিত হয়। এ সময় তারা স্পিড এনার্জি ড্রিংকয়ের সাথে অ্যালকোহল মিশিয়ে সেবন করেন। সেবনের কিছুক্ষণ পরে তাদের শরীরের ভেতর অস্থির লাগলে সবাই কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি হন। এদের মধ্যে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সাজিদ, ফাহিম ও পাভেলের মৃত্যু হয়।

নিহত সাজিদের মামা পিয়াস বলেন, শুনেছি শহরের কোর্ট স্টেশনের পেছনে অবস্থিত রাফি হোমিও হল থেকে ১০০ টাকায় তারা কাচের বোতলে অ্যালকোহল জাতীয় কিছু কিনেছিল।

কুষ্টিয়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) মোস্তাফিজুর রহমান জানান, অ্যালকোহল জাতীয় দ্রব্য তারা কোথায় পেল বা কে বিক্রি করল বিষয়টি নিয়ে তদন্ত চলছে। একজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নেয়া হয়েছে।

পরিবর্তন.

Print Friendly, PDF & Email

Comments

comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.