মুসলিমরা উত্তম চরিত্রের অধিকারী: ফরাসি দার্শনিক

(Last Updated On: October 27, 2020)

ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ম্যানুয়েল ম্যাখোঁর বক্তবের প্রতিবাদ জানিয়ে মুসলিমদের উত্তম চরিত্রের অধিকারী বলে অবিহিত করেন ফ্রান্সের একজন খ্যাতিমান দার্শনিক।

গত শুক্রবার (২৩ অক্টোবর) ফ্রান্সের সি নিউজ-এ সম্প্রচারিত বহুল জনপ্রিয় ‘ফেস অ্য ইনফো’ অনুষ্ঠানে সাম্প্রতিক ঘটনা প্রসঙ্গে মুসলিমদের প্রশংসা করে একথা বলেন ফরাসি দার্শনিক মিশেল অ্যানফ্রে। অনুষ্ঠানে তাঁর প্রতিপক্ষ হিসেবে ছিলেন সাংবাদিক ও লেখক অ্যারিক জেমুর। অনুষ্ঠানটিতে সমকালীন বিষয়াবলি নিয়ে আলোচনা করতে ফ্রান্সের বুদ্ধিজীবীদের নিমন্ত্রণ করা হয়।

স্রষ্টায় অবিশ্বাসী অ্যানফ্রে ইসলামকে বস্তুবাদ মুক্ত জীবনব্যবস্থার ধারক আখ্যায়িত করে বলেন, ‘বস্তুবাদ দমনের রূপরেখা মুসলিমরা আমাদের শিখিয়েছে। তাঁরা এমন মানুষ, যারা আদর্শ চিন্তা এবং আধ্যাত্মিক চেতনা লালন করে।’ এদিকে মুসলিম বিদ্বেষী হিসেবে পরিচিত ও চরম ডানপন্থী লেখক অ্যারিক জেমুর জানান, ‘ইসলাম একটি রাজনৈতিক শক্তি। যা ইউরোপ থেকে প্রতিশোধ গ্রহণ করতে চায়।’

অবশ্য অ্যানফ্রে ও জেমুর উভয়েই বিতর্কে একথা সুস্পষ্টভাবে বলেন যে, সাম্প্রতিককালে ফ্রান্স ‘দুই সভ্যতার সংঘাত’ ও ‘গৃহযুদ্ধ’-এর মধ্যে দিন অতিবাহিত করছে। মুসলিমদের কথা প্রসঙ্গে অ্যানফ্রে আরো বলেন, ‘মুসলিমরা উঁচু সম্মানবোধের অধিকারী। যা আজকের পশ্চিমাবিশ্বে খুবিই দুর্লভ।’

মুসলিম উন্নত চরিত্রের কথা উল্লেখ করে ফরাসি দার্শনিক বলেন, ‘মুসলিমরা উত্তম আচরণ ও চরিত্রের অধিকারী। তাঁরা একথা বিশ্বাস করে, যে কারো সঙ্গে যেকোনো সময় শারীরিক সম্পর্ক নারীর প্রতি সম্মান প্রদর্শন নয়। এটি অত্যান্ত সম্মানজনক ভাবনা। কারণ তাঁরা সচ্চরিত্র লালন করে।’

এর আগে অক্টোবরের শুরুতে মুসলিম বিচ্ছিন্নতাবাদ নিয়ে ফরাসি প্রেসিডেন্ট ম্যানুয়েল ম্যাখোঁর বক্তব্যের প্রতিবাদে এক প্রবন্ধে অ্যানফ্রে বলেন, কিছু কারণে ফ্রান্স কোনো সভ্য নীতি অনুসরণ করে না। এর কোনো নীতি নেই এবং নিজ সভ্যতাকে অবজ্ঞা করে। সূত্র : আল জাজিরা নেট

Print Friendly, PDF & Email

Comments

comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.