প্রেমিকার বিয়েতে প্রেমিকের হামলা, আহত ৩০

(Last Updated On: আগস্ট ৬, ২০১৬)

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলায় একটি বিয়ে বাড়িতে কনের সাবেক প্রেমিক ও তার দলবলের হামলায় দুইপক্ষের ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া ও সংঘর্ষে অন্তত ৩০জন আহত হয়েছেন। শুক্রবার বিকেলে বিশনন্দী ইউনিয়নের বিশনন্দী গ্রামে এ হামলা ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এদিকে সংঘর্ষের সময় ভাঙচুর করা হয় গোপালদি পৌরসভার মেয়রের গাড়ি। প্রায় এক ঘণ্টা অবরুদ্ধের পর পুলিশ তাকে উদ্ধার করে।

জানা গেছে, গোপালদি পৌরসভার মেয়র এম এ হালিম শিকদারের মামাতো ভাই রামচন্দ্রদী গ্রামের দুলাল মিয়ার সঙ্গে বিশনন্দী গ্রামের রিপন মিয়ার মেয়ে সোনিয়া আক্তারের বিয়ে শুক্রবার দুপুরে হয়। তবে বিয়ের আগে দুপুর ১২টার দিকে সোনিয়ার সাবেক প্রেমিকা বিশনন্দী গ্রামের রুহুল ও তার সহযোগী রনিসহ ১০ থেকে ১২ জন গিয়ে বিয়ে বন্ধ রাখতে বলে। এ পরিস্থিতিতে দুপুর ২টার দিকে বরপক্ষ চলে আসে, যেখানে মেয়র হালিম শিকদারও উপস্থিত ছিলেন। বিয়ের পর বিকেল ৩টার দিকে আবারও হুমকি দেয় ওই প্রেমিক। এক পর্যায়ে সে তার লোকজন নিয়ে হামলা করে। এ সময় কনে ও বরপক্ষের লোকজনদের সঙ্গে হামলাকারীদের সংঘর্ষ শুরু হয়। এমতাবস্থায় অবরুদ্ধ করে রাখা হয় মেয়রকে। একই সঙ্গে ভাঙচুর করা হয় মেয়রের গাড়িসহ কনের বাড়িতে থাকা বিয়ের আসবাবপত্র ও অন্য জিনিসপত্রও।

এ বিষয়ে কনের বাবা রিপন মিয়া জানান, সকালে রনি ও রুহুলসহ আরও কয়েকজন এসে বিয়েতে বাধা দেয়। পরে দুপুরে বরপক্ষ আসলে বিয়ে পড়ানো হয়। কিন্তু এর পরেই শুরু হয় হামলা।  থানা পুলিশ জানায়, এ সংঘর্ষে পুলিশের কনস্টেবল হুমায়ূনসহ স্থানীয় মনির, কাউসার, আউয়াল, হক মিয়া, জজ মিয়া, শামীমসহ অন্তত ২০ জন আহত হয়েছেন। আহতদের আড়াইহাজার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও নরসিংদির বিভিন্ন হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ ছাড়াও আরও কয়েকজন পুলিশ সদস্যের আহতের খবর জানা গেলেও তাদের পরিচয় তাৎক্ষনিক জানা যায়নি। এ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে আড়াইহাজার থানার ওসি সাখাওয়াত হোসেন জানান, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ কমপক্ষে ৪০ রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছুড়েছে। বিকেল ৫টার পর পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে।  তিনি আরো জানান, হামলাকারীদের শনাক্ত করে গ্রেপ্তারের প্রক্রিয়া চলছে। সংঘর্ষে পুলিশের বেশ কয়েকজন সদস্য আহত হয়েছেন। – kalerkantho.com

Print Friendly, PDF & Email

Comments

comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.