বিজয় দিবসে মুখর বঙ্গভবন

(Last Updated On: ডিসেম্বর ১৬, ২০১৬)

৪৫তম বিজয় দিবসে যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা, রাজনীতিক, সামরিক-বেসামরিক কর্মকর্তা, বিদেশি কূটনীতিক, ব্যবসায়ী, সাংবাদিকসহ বিভিন্ন পেশার প্রতিনিধিদের পদচারণা আর সুরের মূর্ছনায় মুখর ছিল বঙ্গভবন।

বরেণ্য শিল্পীদের কণ্ঠে দেশাত্মবোধক ও লোকগান এবং শিশুশিল্পীদের পরিবেশনার পাশে সশস্ত্র বাহিনীর বাদক দলের মূর্ছনা এই আয়োজনে এনে দেয় অনন্য রূপ।

বিকাল ৪টার কিছু পরে স্ত্রী রাশিদা খানমকে সঙ্গে নিয়ে বঙ্গভবনের মাঠে অনুষ্ঠানস্থলে আসেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। তার কিছুক্ষণ আগেই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বঙ্গভবনে পৌঁছান। তারা অনুষ্ঠানে সবার সঙ্গে কুশল বিনিময় করেন।

রাষ্ট্রপতি ও তার স্ত্রী মঞ্চে আসার সঙ্গে সঙ্গে শুরু হয় জাতীয় সংগীত। কুশল বিনিময়ের পর রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা, বীরশ্রেষ্ঠদের পরিবারের সদস্যসহ আমন্ত্রিত অতিথিদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় করেন।

তারা যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধাদের শারীরিক অবস্থার খোঁজ-খবর নেন এবং তাদের সার্বিক সহায়তার আশ্বাস দেন। ভারত ও শ্রীলংকার ন্যাশনাল ক্যাডেট কোরের সদস্যদের সঙ্গেও কুশল বিনিময় করেন বাংলাদেশের রাষ্ট্র ও সরকারপ্রধান।

বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে অংশ নেওয়া ভারতের সশস্ত্র বাহিনীর ২৭ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল যোগ দেয় বঙ্গভবনের এই অনুষ্ঠানে। এ দলের নেতৃত্বে ছিলেন অবসরপ্রাপ্ত লেফটেন‌্যান্ট জেনারেল জিএস সিহোতা।

অনুষ্ঠান মাঠের ভিভিআইপি এনক্লোজারে বিজয় দিবস উপলক্ষে কেক কাটেন রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী।

পরে মন্ত্রিপরিষদের সদস্য, বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রদূত, বিদেশি অতিথি, সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি, সংসদ সদস্য, তিন বাহিনীর প্রধানসহ সমারিক-বেসামরিক কর্মকর্তা, বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য, সুশীল সমাজের প্রতিনিধি ও আমন্ত্রিত অতিথিদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় করেন।

শিল্পী রফিকুল আলম, শাকিলা জাফর, ফাহমিদা নবী, সন্দীপন, প্রিয়াংকা বিশ্বাস ও সজীব দাস অনুষ্ঠানে গেয়ে শোনান। এছাড়া শিশু একাডেমির শিশু শিল্পীদের পরিবেশনাও অতিথিদের মুগ্ধ করে।

 http://dainikamadershomoy.com/
Print Friendly, PDF & Email

Comments

comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.