লাকসাম ভাকড্ডা স্কুলের প্রাক্তন ছাত্র-ছাত্রী এসোসিয়েশনের অভিষেক

(Last Updated On: ডিসেম্বর ১৯, ২০১৬)

সেলিম চৌধুরী হীরা, লাকসাম ,মহান বিজয়ের ৪৫ বছর পূর্তি উপলক্ষে গতকাল সন্ধ্যায় লাল-সবুজের উল্লাসে মেতে উঠেছে লাকসাম উপজেলার কান্দিরপাড় ইউপির ভাকড্ডা গ্রামের মানুষ। ওইদিন ভাকড্ডা প্রাইমারী ও হাইস্কুল প্রাক্তন ছাত্র-ছাত্রী এসোসিয়েশন কর্মকর্তাদের অভিষেক অনুষ্ঠান ঘিরে লাকসাম পৌরশহর থেকে ওই গ্রামের হাইস্কুল মাঠ পর্যন্ত প্রধান সড়কগুলোতে তোরণ, ব্যানার ও নানা রঙ্গের ফেষ্টুনে সকল অলিগলি ছিলো লাল-সবুজের বিজয় উল্লাসে মুখোরিত। অনুষ্ঠানস্থল ছিলো জনসমুদ্রে পরিনত এবং সন্ধ্যা ঘনিয়ে আসলেই মিউজিক পার্টির সুরের মূর্ছনায় আর সকল শ্রেনী পেশার মানুষ ও আমন্ত্রিত অতিথিবৃন্দের পদচারনায় মুখোর হলো অনুষ্ঠানের চারিদিক।
মহান বিজয়ের ৪৫ বছর পূর্তি উপলক্ষে ওই এলাকার প্রাক্তন ছাত্র-ছাত্রী সংগঠনের উদ্যোগে স্থানীয় ভাকড্ডা হাইস্কুল মাঠে ওই সংগঠনের সভাপতি ও কান্দিরপাড় ইউপি চেয়ারম্যান ওমর ফারুকের সভাপতিত্বে অভিষেক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন স্থানীয় সংসদ সদস্য মোঃ তাজুল ইসলাম। বিশেষ অতিথি উপজেলা চেয়ারম্যান এডভোকেট ইউনুছ ভঁইয়া, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ দেলোয়ার হোসেন, ওই সংগঠনের প্রধান উপদেষ্টা এডভোকেট আবু তাহের, উপদেষ্টা রুহুল আমিন মাষ্টার, মাষ্টার মাহবুবুর রহমান, সংগঠনের সাধারন সম্পাদক মোঃ সামছুল হক, মোঃ আবদুর রাজ্জাক হোসেন, মোঃ মাকছুদুর রহমান ও ওই হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষিকা খন্দকার রাহেলা বেগম বক্তব্য রাখেন।
এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে লাকসাম উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মহব্বত আলী, পৌর প্যানেল মেয়র-২ আবদুল আলিম দিদার, মুক্তিযোদ্ধা তাজুল ইসলাম, যুবলীগ নেতা মোশারফ হোসেন মজুমদার, মনিরুল ইসলাম রতন, গোবিন্দপুর ইউপি চেয়ারম্যান নিজাম উদ্দিন শামীম, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সিহাব খাঁন, সাধারন সম্পাদক সাইফুল ইসলাম, ওই সংগঠনের নেতা মোঃ তাজুল ইসলাম, ব্যবসায়ী জামাল আহমেদ, কাউছার আলম, ঠিকাদার শাহাদাত হোসেন ও মেম্বার মনির হোসেন সুমনসহ বিভিন্ন এলাকা থেকে আগত রাজনৈতিক এবং সামাজিক সংগঠনের শীর্ষ স্থানীয় নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
উক্ত অনুষ্ঠান শেষে চ্যানেল আই, ভারতের কলকাতা থেকে আগত এবং স্থানীয় শিল্পীদের সমন্বয়ে এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, কুইজ প্রতিযোগিতা, অতিথিদের ক্রেষ্ট-সম্মাননা প্রদান ও ঢাকা ভ্রাম্যমান মুক্তিযোদ্ধা জাদুঘরের বিভিন্ন চিত্রকল্প প্রদর্শন ছিলো দেখার মতো।

Print Friendly, PDF & Email

Comments

comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.