‘জেলা পরিষদ নির্বাচন রসিকতা’

(Last Updated On: December 27, 2016)

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান বলেছেন, যাদেরকে জোর করে নির্বাচিত করা হয়েছে তাদের ভোটে নির্বাচিত করা হবে জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান। কাজেই এই নির্বাচন এক ধরনের রসিকতা।

২০১৪ সালে ৫ জানুয়ারির জাতীয় নির্বাচন যেমন ছিল প্রহসনের তেমনি জেলা পরিষদ নির্বাচনও আরেকটি লোক দেখানো প্রহসনের নির্বাচন বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

আজ মঙ্গলবার দুপুরে জাতীয়তাবাদী সামাজিক সংস্থা (জাসাস) এর ৩৮তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের সমাধিতে ফুলেল শ্রদ্ধা জানানোর পর বিএনপি নেতা নজরুল এ কথা বলেন।

জেলা পরিষদ নির্বাচনে জনমতের প্রতিফলন নাই বলে মন্তব্য করে তিনি বলেন, বিগত দিনে উপজেলা, পৌরসভা ও ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে জোর করে ফলাফল পাল্টে দেওয়া হয়েছে। উপজেলা নির্বাচনের প্রথম ও দ্বিতীয় ধাপে আমরা (বিএনপি) আশান্বিত ছিলাম, কিন্তু পরবর্তী ধাপগুলোতে জোর করে দখল করে নিয়েছে। পৌরসভা নির্বাচনেও তাই করেছে আর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে তো নমিনেশন দাখিল করতেই দেয় নাই।

বিএনপি নেতা বলেন, জেলা পরিষদ নির্বাচনে বিএনপি অংশ নিচ্ছে না। নেওয়ার সুযোগও নেই। অথচ এই নির্বাচনেও তারা (আওয়ামী লীগ) নিজেরা নিজেরা টাকা খরচ করছে। স্বভাব খারাপ হলে যা হয় আরকি।

নজরুল ইসলাম খান বলেন, আওয়ামী লীগ ও তার অঙ্গ সহযোগীরা এখন বেপরোয়া। নিজেরা নিজেরা খুনাখুনি করছে আর প্রকাশ্যে যখন এসব ঘটনা ঘটে তখন এতে জনমতের প্রতিফলন থাকে না।

এসময় আয়োজক সংগঠনের সভাপতি এম এ মালেক ও সাধারণ সম্পাদক মনির হোসেনসহ সংগঠনের নেতা-কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

Print Friendly, PDF & Email

Comments

comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.