বুধবার, ২৮ জুলাই ২০২১, ০৪:৪২ পূর্বাহ্ন

ছাত্রলীগ নেতার অভিশাপে ছাড়খার আল্লামা মামুনুল হক!

আমাদের সময়.কম
  • আপডেট টাইম : বুধবার, ৭ এপ্রিল, ২০২১
  • ৩৯৪ বার

হেফাজতে ইসলামের তান্ডবের কারণে বাবাকে জড়িয়ে ধরে কেঁদেছিলেন জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শাহাদাৎ হোসেন শোভন। গত সোমবার (৫ এপ্রিল) ফেসবুক ওয়ালে একটি আবেগঘন স্ট্যাটাস দিয়েছেন এই নেতা। তিনি হেফাজত নেতা মামুনুল হককে উদ্দেশ্য করে লিখেন, হেফাজতে জামাতে ইসলামের নেতা হক সাহেব অভিশাপ তো উল্টো লেগে গেছে।

ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শাহাদাৎ হোসেন শোভনের স্ট্যাটাসটি নিচে লিঙ্ক সহ দেওয়া হলো :

হেফাজতে জামাতে ইসলামের নেতা হক সাহেব অভিশাপ তো উল্টো লেগে গেছে।
এই অভিশাপ কিসের জানেন?
এই অভিশাপ আমার বৃদ্ধ বাবার কোথাও থেকে পাওয়া ছদকা কিংবা লিল্লায় নয় বরং তিলে তিলে রক্ত ঘামে সারাজীবনের কষ্টার্জিত উপার্জনে গড়ে তোলা সাজানো ঘর বাড়ি সংসার পুড়ে ছাই করে দেওয়া ধ্বংসস্তুপের উপর দাঁড়িয়ে দীর্ঘশ্বাসের অভিশাপ।
এই অভিশাপ আমার বৃদ্ধ মায়ের চোখের পানির অভিশাপ।
এই অভিশাপ আমার ঘর বাড়ির সঙ্গে আপনাদের দ্বারা জ্বালিয়ে দেওয়া পবিত্র কোরআন শরীফের কাল হরফের অভিশাপ।
এই অভিশাপ আমার ভাইদের স্বপ্ন পুড়ে ছাই হয়ে যাওয়ার অভিশাপ।
এই অভিশাপ একজন যুদ্ধাহত বীরমুক্তিযোদ্ধার সারাজীবনের স্বপ্ন, মুক্তিযুদ্ধের দলিল সংগ্রহ সহ সারাজীবনের অর্জিত সকল স্মৃতি পুড়ে ছাই করে দেওয়ার ফসল।

শাপ ব্রাহ্মণবাড়িয়া রেলস্টেশনকে কেন্দ্র করে শতশত মানুষের জীবন ও জীবিকা নিমিষেই পুড়ে ছাই করে দেওয়ার ফল।
এই অভিশাপ ছেলে ছাত্র নেতা হওয়ার অপরাধে ঘরবাড়ি ভাংচুরের পাশাপাশি ঘরে থাকা অসুস্থ পিতা মাতার উপর হামলার অভিশাপ।
এই অভিশাপ আপনাদের দ্বারা হত্যার স্বীকার ওয়ার্কশপে কাজ করা পথচারী আশিকের রক্তের অভিশাপ।
এই অভিশাপ আপনাদের দ্বারা হত্যার স্বীকার জীবন জীবিকার তাগিদে ঘর থেকে বের হওয়া একজন রিক্সাচালকের স্ত্রী সন্তানের আহাজারির অভিশাপ।
এই অভিশাপ মিথ্যা গুজব রটিয়ে ধর্মপ্রাণ মানুষের ধর্মভীরুতা পুঁজি করে, এতিম অবুঝ শিশুদের দিয়ে নিজেদের রাজনৈতিক ফায়দা হাসিল করার উদ্দেশ্যে রাস্তায় এনে রক্ত ঝড়ানোর অভিশাপ।
এই অভিশাপ একজন দরিদ্র মতিনের সারাজীবনের অর্জন ক্ষুদ্র ব্যবসায় প্রতিষ্ঠান পুড়িয়ে নিঃশেষ করে দেওয়ার অভিশাপ।
এই অভিশাপ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, ধর্মীয় উপাসনালয়, বাইতুল মোকারম মসজিদকে রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে ব্যবহার করে ধ্বংসযজ্ঞ চালানো, হাজার হাজার মানুষের সব কিছু পুড়িয়ে সর্বস্বান্ত করে দেওয়ার, গরিব দুঃখী মানুষের ঘাম রক্ত নিঃসৃত হাহাকারের অভিশাপ।

বিঃদ্রঃ- আপনাদের অনেকেই মিথ্যা গুজব রটাচ্ছেন যে, আমি বা আমরা মাদ্রাসার ভেতরে ডুকে হামলা করেছি!! আমি দায়িত্ব নিয়ে বলতে চাই কথাটি পুরোপুরি মিথ্যে বানোয়াট।
আপনারা যারা ধর্মব্যবসায়ী আছেন, ধর্মকে পুঁজি করে চলেন, আপনারা মনে রাখবেন,-ইসলাম ধর্ম আপনাদের বাপ-দাদার কেনা সম্পত্তি নয় যে, আপনাদের রাজনৈতিক সুবিধার জন্য যখন তখন. যাকে তাকে কাফের, নাস্তিক মুরতাদ ঘোষণা করবেন। ইসলাম যতোটুকু আপনার ততোটুকু আমারও। ইসলাম শান্তির ধর্ম, ইসলাম ধর্মে সকল ধর্মের মানুষের শান্তিপূর্ণ সহবস্থান নিশ্চিত করেছেন।

আর বাংলাদেশের মানুষ আপনাদের আক্রোশের মূল কারনটি জেনে গেছে। আপনাদের মুখোস উন্মোচিত হয়ে গেছে। আপনাদের আক্রোশের ধর্মীয় কোন ইস্যু নেই। আপনাদের আক্রোশ স্বাধীনতার ৫০ বছর মেনে না নিতে পারার, আপনাদের আক্রোশ এদেশের স্বাধীনতায় মুক্তিযুদ্ধে বঙ্গবন্ধু এবং বাংলাদেশে।

আমাদের সময়.কম

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..
© All rights reserved © 2021 DeshPriyo News
Designed By SSD Networks Limited
error: Content is protected !!