শুক্রবার, ০৫ মার্চ ২০২১, ০৩:০৭ পূর্বাহ্ন

শিক্ষিকাকে বিয়ে করলেন একই বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগ নেতা

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : শনিবার, ৬ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
  • ৪০৯ বার

‘ভাগ্যের লিখন না যায় খন্ডন’ বাক্যটি অধিকাংশ সময়ে মানুষ বলে থাকেন। কথাটি আরেকবার সত্য হলো শিক্ষিকা ও ছাত্রলীগ নেতার মধ্যে ধুমধাম বিয়ে অনুষ্ঠানে। ভাগ্য কাকে কখন কিভাবে কোথায় পৌঁছে নিয়ে যায় তা বলা বেশ কঠিন। বিশ্ববিদ্যালয়ের শাখা ছাত্রলীগের পদে থাকাবস্থায় একই বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষিকাকে বিয়ে করলেন বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বাকৃবি) শাখা ছাত্রলীগের বর্তমান সাধারণ সম্পাদক মিয়া মোহামম্মদ রুবেল। আজ শুক্রবার ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবেশবিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষিকা হাফছা জাহান হিয়ার সঙ্গে তিনি বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হয়েছেন।

জমকালো আয়োজনের মধ্য দিয়ে বিবাহ অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের কমিউনিটি সেন্টারে কৃষিবিদ হাফছা জানান হিয়ার সাথে তিনি বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। বিবাহ অনুষ্ঠানে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, কর্মকর্তা, ছাত্রলীগের বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মী ছাড়াও ময়মনসিংহের রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। কমিউনিটি সেন্টার সূত্রে জানা যায়, বিবাহ অনুষ্ঠানে পাঁচ শতাধিকের অধিক অতিথিকে অ্যাপায়ন করা হয়েছে।

একেবারে ধুমধাম করেই হয়েছে এ বিয়ে। বৃহস্পতিবার হয়েছে তাদের গায়েহলুদ। শুক্রবার বিশ্ববিদ্যালয়ের কমিউনিটি সেন্টারে অনুষ্ঠিত এ বিয়েতে দাওয়াত পেয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের সব শিক্ষক, প্রশাসনের কর্মকর্তাসহ অনেকেই। তাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন প্রায় সবাই। ময়মনসিংহের রাজনৈতিক ব্যক্তিরাও শুভেচ্ছা জানাতে এসেছিলেন তাদের। কমিউনিটি সেন্টার সূত্রে জানায়, প্রায় ৫০০ অতিথি আপ্যায়নের আয়োজন ছিল। উপস্থিত ছিলেন এর চেয়েও বেশি।

বর্তমান সাধারণ সম্পাদকের বিয়েতে শাখা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের মধ্যেও ছিল অন্য রকম আনন্দ। নেতার প্রতি ভালোবাসা দেখিয়েই উপস্থিত ছিলেন তারাও। বিয়ের অনুষ্ঠানে এসে এ যুগলের সঙ্গে স্মৃতি হয়ে থাকার ছবি তুলেছেন প্রায় সবাই। পবিত্র সম্পর্কে জড়ানোর জন্য অভিনন্দন জানিয়েছেন সবাই। এদের অনেকে আবার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে সেগুলো পোস্টও করেছেন। সেখানে রয়েছে এ যুগলের দাম্পত্য জীবনের জন্য শুভ কামনা।

তবে বাকৃবি শাখা ছাত্রলীগের দায়িত্বপূর্ণ পদে থেকে এ রকম কাজের বিষয়ে জানতে চাইলে শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মিয়া মোহাম্মদ রুবেল বলেন, তিনি কেন্দ্রীয় শাখা ছাত্রলীগকেও বিষয়টি জানিয়েছেন। তবে বিষয়টি নিশ্চিত হওয়ার জন্য কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্যকে ফোন ও বার্তা পাঠিয়ে জানতে চাওয়া হলে তারা ফোন ধরেননি।

উল্লেখ্য, ২০১৬ সালের ১৭ নভেম্বর বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সর্বশেষ কমিটি অনুমোদন দেওয়া হয়, যেখানে সবুজ কাজী সভাপতি এবং মিয়া মোহাম্মদ রুবেল সাধারণ সম্পাদক হিসেবে মনোনীত হন। আমাদের সময়/ আরটিভি

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..
© All rights reserved © 2021 DeshPriyo News
Designed By SSD Networks Limited
error: Content is protected !!