বুধবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০২:২৪ পূর্বাহ্ন

সৌদি আরবের নাগরিকত্ব পেলেন বাংলাদেশি মুখতার আলিম

তোফায়েল আহমেদ
  • আপডেট টাইম : রবিবার, ১৪ নভেম্বর, ২০২১
  • ২২২৮ বার
সৌদি আরবের নাগরিকত্ব পেয়েছেন বাংলাদেশি মুখতার আলিম বিন মুস্তাফিজুর রহমান

তোফায়েল আহমেদ : সৌদি আরবের নাগরিকত্ব পেয়েছেন বাংলাদেশি মুখতার আলিম বিন মুস্তাফিজুর রহমান। তিনি তিনি পবিত্র কাবা শরীফের গিলাফের প্রধান ক্যালিগ্রাফার। মুখতার আলিমের জন্ম বাংলাদেশের চট্টগ্রাম জেলায়। সৌদি বাদশার এক রাজকীয় আদেশের উদ্ধৃতি দিয়ে সৌদি আরবের সংবাদমাধ্যম এ তথ্য জানায়।

সৌদি সরকারের লক্ষ্যমাত্রা বা ‘ভিশন-২০৩০’ বাস্তবায়নে বিভিন্ন পেশায় দক্ষ ও চৌকসদের আকৃষ্ট করতে বিদেশিদের নাগরিকত্ব দেয়ার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে রাজপ্রাসাদ। নাগরিকত্ব লাভকারী দক্ষ পেশাজীবীরা সৌদি আরবের বিভিন্ন খাতের উন্নয়নে অবদান রাখবেন বলে আশা করা হচ্ছে। সম্প্রতি সৌদি আরবের সরকার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিভিন্ন ক্ষেত্রে উদ্ভাবনি ক্ষমতা সম্পন্ন প্রতিভাবান বিদেশীদের সৌদি আরব নাগরিকত্ব প্রদান করবে।

সৌদি সংবাদ মাধ্যম আশ শারাক আল আওসাতের বরাত দিয়ে সৌদি গেজেট জানায়, নাগরিকত্ব পাওয়া বিশিষ্ট ব্যক্তিদের মধ্যে রয়েছেন, পবিত্র কাবার গিলাফের (কিসওয়া) প্রধান ক্যালিগ্রাফার মুখতার আলিম, ইতিহাসবিদ ড. আমিন সিদো, ড. আবদুল করিম আল সামমাক, প্রখ্যাত গবেষক ড. মুহাম্মদ আল বাকাই ও প্রখ্যাত নাট্য শিল্পী সামান আল আনি। মুখতার বর্তমানে মক্কার কিসওয়া কারখানায় পবিত্র কাবার কিসওয়ার প্রধান ক্যালিগ্রাফার হিসেবে কাজ করছেন। বিভিন্ন আন্তর্জাতিক প্রদর্শনী ও ফোরামে তার প্রধান ক্যালিগ্রাফিগুলো প্রদর্শিত হয়েছে।

ক্যালিগ্রাফি দক্ষতা বিষয়ক প্রশিক্ষণে তিনি গুরুত্বপূর্ণ পাঠদান করেন। মক্কার দ্য ইনস্টিটিউট অব হলি মসকো তথা পবিত্র মসজিদুল হারাম পরিচালিত প্রতিষ্ঠানে ক্যালিগ্রাফি বিষয়ক তার পাঠ শোখানো হচ্ছে। মুখতার আলিম মক্কার বিখ্যাত উম্মুল কোরা বিশ্ববিদ্যালয়ে স্নাতকোত্তর সম্পন্ন করে বর্তমানে পিএইচডি গবেষণারত। তিনি একই বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিপ্লোমা, স্নাতকোত্তর ও পিএইচডি ডিগ্রিধারীদের সার্টিফিকেটের ক্যালিগ্রাফার হিসেবেও কাজ করেছেন। এছাড়াও বিভিন্ন সংস্থা থেকে অসংখ্য পুরস্কার ও প্রশংসার সনদ পেয়েছেন তিনি।

জানা যায়, মুখতার আলম চট্টগ্রামের লোহাগাড়া উপজেলার আধুনগর ইউনিয়নের রশীদের ঘোনা গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তার বাবার নাম মুফিজুর রহমান বিন ইসমাঈল শিকদার। মায়ের নাম শিরিন বেগম। তার বাবা কর্মজীবনের শুরুতে কিছুদিন ঐতিহ্যবাহী চুনতি হাকীমিয়া আলিয়া মাদরাসার শিক্ষক ছিলেন। পরবর্তীতে তিনি দীর্ঘ সময় সৌদি স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের অধীনে ফার্মাসিস্ট হিসেবে বিভিন্ন হাসপাতালে দায়িত্ব পালন করেন। মূলত বাবার কর্মসূত্রে পরিবারের সদস্যরা দীর্ঘ সময় সৌদিতে কাটিয়েছেন। বর্তমানে মুখতার তার মা, স্ত্রী ও চার মেয়েকে নিয়ে মক্কায় আছেন। মুখতারের চার ভাই ও এক বোন।

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর..
© All rights reserved © 2022 DeshPriyo News
Designed By SSD Networks Limited
error: Content is protected !!